বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'ভালো লাগত', তাই ল্যাবের বাথরুমে ফোন লুকিয়ে ভিডিয়ো, গ্রেফতার নিরাপত্তারক্ষী
'ভালো লাগত', তাই ল্যাবের বাথরুমে ফোন লুকিয়ে ভিডিয়ো, গ্রেফতার নিরাপত্তারক্ষী। (ছবিটি প্রতীকী)
'ভালো লাগত', তাই ল্যাবের বাথরুমে ফোন লুকিয়ে ভিডিয়ো, গ্রেফতার নিরাপত্তারক্ষী। (ছবিটি প্রতীকী)

'ভালো লাগত', তাই ল্যাবের বাথরুমে ফোন লুকিয়ে ভিডিয়ো, গ্রেফতার নিরাপত্তারক্ষী

বাথরুমে ঝাঁটার পিছনে লুকিয়ে রাখা ছিল ভিডিয়ো অন করা মোবাইল।

প্যাথলজিকাল ল্যাবের শৌচালয়ে লুকিয়ে মোবাইল ক্যামেরা রাখার অভিযোগে এক নিরাপত্তা কর্মীকে গ্রেফতার করল বেলুড় থানার পুলিশ। শুক্রবার চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার বেলুড় স্টেশন রোডের একটি বেসরকারি প্যাথলজিকাল ল্যাবে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ওই নিরাপত্তারক্ষীর নাম মহম্মদ ইমতিয়াজ। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার কাছ থেকে একটি মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। তাতে একাধিক মহিলার আপত্তিকর ভিডিয়ো উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশি জেরায় অভিযুক্ত জানিয়েছে, এই কাজ করতে ভালো লাগে। উত্তর শুনে স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছেন তদন্তকারীরা। বেসরকারি প্যাথলজিকাল ল্যাবের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। একজন নিরাপত্তারক্ষী কীভাবে দিনের পর দিন মহিলাদের আপত্তিকর ভিডিয়ো তুলে গিয়েছেন, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। অবশ্য এই বিষয় ল্যাব কর্তৃপক্ষ কোনও মন্তব্য করতে চায়নি।

শুক্রবার ওই প্যাথলজিকাল ল্যাবে শারীরিক পরীক্ষা করাতে গিয়েছিলেন এক মহিলা। প্রথমে তাঁরই বিষয়টি নজরে আসে। পরীক্ষা করানোর আগে প্যাথলজিকাল ল্যাবের শৌচালয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে ঢুকে আচমকাই তাঁর নজর পড়ে শৌচালয়ের এক কোণায় পড়ে থাকা ঝাঁটার উপরে। তার পিছনে কোনও বস্তু লুকিয়ে রাখা অবস্থায় দেখতে পান তিনি। ভালো করে খতিয়ে দেখতে গিয়ে আঁতকে উঠেন ওই মহিলা। দেখতে পান, ঝাঁটার পিছনে লুকানো ওই বস্তুটি একটি মোবাইল ফোন। শুধু তাই নয়, ওই মোবাইলের ভিডিয়ো রেকর্ডিং অপশনটি অন করা অবস্থায় রাখা রয়েছে। তৎক্ষণাৎ তিনি শৌচালয় ছেড়ে বেরিয়ে আসেন। বিষয়টি জানান প্যাথলজিক্যাল ল্যাব কর্তৃপক্ষকে। তারপরই বেলুড় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলে অভিযুক্ত ওই নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বন্ধ করুন