বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > লকডাউনের মধ্যে খাওয়াবো কী? সদ্যোজাতকে খুন করে বাড়ির পাশে ঝোপে ফেলে দিলেন মা
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

লকডাউনের মধ্যে খাওয়াবো কী? সদ্যোজাতকে খুন করে বাড়ির পাশে ঝোপে ফেলে দিলেন মা

  • দিনকয়েক আগে একটি কন্যাসন্তানের জন্ম দেন বাসন্তী। রবিবার বাড়ির পাশে ঝোপে সেই শিশুর প্লাস্টিকে মোড়া দেহ উদ্ধার করেন স্থানীয়রা।

একে লকডাউনের জেরে নেই উপার্জন। ২ মেয়ে ও ১ ছেলেকে নিয়ে ৫ জনের সংসার চালানো দায়। তার ওপর কোলে এসেছে আরও ১টি। সদ্যোজাত সেই কন্যাসন্তানকে খুন করালেন মা। ঘটনা নদিয়ার গয়েশপুর পুসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের। সন্তানহন্তা মা বাসন্তী রায়কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

জানা গিয়েছে, গয়েশপুরের ১ নম্বর ওয়ার্ডে দীর্ঘদিন ভাড়া থাকতেন প্রাণকৃষ্ণ রায় ও বাসন্তদেবী। তাঁদের ১ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে। গত বছর ফের গর্ভবতী হন বাসন্তী। এর পর শুরু হয় লকডাউন। স্থানীয় একটি দোকানের কর্মী প্রাণকৃষ্ণবাবুর লকডাউনে কাজ চলে যায়। সংসার চালাতে মুড়ি ভাজতেন বাসন্তীদেবী। তাঁরও উপার্জন কমে যায়। 

দিনকয়েক আগে একটি কন্যাসন্তানের জন্ম দেন বাসন্তী। রবিবার বাড়ির পাশে ঝোপে সেই শিশুর প্লাস্টিকে মোড়া দেহ উদ্ধার করেন স্থানীয়রা। এর পর বাসন্তীকে জেরা করতে তিনি দাবি করেন, লকডাউনের জেরে সংসারে চরম অনটন। তার ওপর আরও একটা সন্তানকে খাওয়াবেন কী? তাই শনিবার রাতে তাকে খুন করে পাশের ঝোপে ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। পরিকল্পনা ছিল  রবিবার পুঁতে দেবেন দেহটি। তার আগেই দেহটি দেখতে পেয়ে যান স্থানীয়রা। 

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। সদ্যোজাতের দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে তারা। গ্রেফতার করা হয়েছে মা বাসন্তী রায়কে। সত্যিই অনটনের জেরে খুন, না কি কন্যাসন্তান হওয়ায় বিদ্বেষের শিকার। তদন্ত করছে পুলিশ। 

 

বন্ধ করুন