বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > রাজ্যে ২০০ টাকা ছুঁয়ে ফেলল সরষের তেল, পুজোর আগে মাথায় হাত মধ্যবিত্তের
রাজ্যে ২০০ টাকা ছুঁয়ে ফেলল সরষের তেল, পুজোর আগে মাথায় হাত মধ্যবিত্তের
রাজ্যে ২০০ টাকা ছুঁয়ে ফেলল সরষের তেল, পুজোর আগে মাথায় হাত মধ্যবিত্তের

রাজ্যে ২০০ টাকা ছুঁয়ে ফেলল সরষের তেল, পুজোর আগে মাথায় হাত মধ্যবিত্তের

  • মাসখানেক আগেই ভোজ্য তেলের দাম কমবে বলে আশ্বাস দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।

মাসখানেক আগেই ভোজ্য তেলের দাম কমবে বলে আশ্বাস দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। দাম তো কমলই না। উলটে পশ্চিমবঙ্গের কয়েকটি জায়গায় ডবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ফেলল সরষের তেল। সেই পরিস্থিতিতে মধ্যবিত্তের মাথায় হাত পড়েছে।

শুক্রবার এক কিলোগ্রাম সরষের তেল কলকাতায় বিক্রি হয়েছে ১৭৫-২০০ টাকায়। কলকাতা লাগোয়া বিভিন্ন বাজারের দোকানদাররা জানিয়েছেন, গত বছর সেপ্টেম্বরের গোড়ার দিকে এক কেজি সরষের তেলের দাম পড়ছিল ১২৫-১৩০ টাকার মতো। ২০১৯ সালে তো দামটা আরও কম ছিল। জেলার ছবিটাও এক। বাঁকুড়া এবং বর্ধমানে এক কেজি সরষের তেলের দাম ১৮০-২০০ টাকার মধ্যে ঘোরাফেরা করছে। পুরুলিয়ায় প্রতি কেজির দাম ১৭০-১৮৫ টাকা এবং উত্তরবঙ্গে এক কেজি সরষের তেলের দাম ১৭০-১৮০ টাকার মধ্যে আছে। ব্র্যান্ডেড তেলের দর তো আরও বেশি পড়ছে।

এমনিতেই গত কয়েক মাস ধরে হুড়মুড়িয়ে বেড়েছে পেট্রল ও ডিজেলের দাম। চলতি মাসের গোড়ায় ভর্তুকিহীন রান্নার গ্যাসের দাম ৯০০ টাকা ছাড়িয়ে গিয়েছে। তার ফলে মধ্যবিত্তের হেঁশেলে কার্যত আগুন জ্বলছে। তারইমধ্যে সরষের তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় মধ্যবিত্তের মাথায় হাত পড়েছে। বিশেষত দুর্গাপুজোর আগে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম লাগামছাড়ায় হয়ে যাওয়ায় আরও সমস্যা বেড়েছে।

যদিও কেন্দ্র জানিয়েছে, এখনই কমছে না ভোজ্য তেলের দাম। আগামী ডিসেম্বর থেকে দাম কমতে পারে। সেই সময় আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম হ্রাস পাওয়া সম্ভাবনা আছে। সেইসঙ্গে বাজারে আসবে নয়া শস্য। সেই জোড়া অনুঘটকে ভোজ্য তেলের দাম কমতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে দাম যে অনেকটা কমে যাবে, তেমন কোনও আশা দেখাতে পারেনি কেন্দ্র।

বন্ধ করুন