বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ভয় দেখাতে ‘টাইম বোম’, পাঁশকুড়ায় IED উদ্ধারে গ্রেফতার মার্বেল মিস্ত্রি
ধৃত আসানুুর, ডোরাকাটা গেঞ্জিতে। 
ধৃত আসানুুর, ডোরাকাটা গেঞ্জিতে। 

ভয় দেখাতে ‘টাইম বোম’, পাঁশকুড়ায় IED উদ্ধারে গ্রেফতার মার্বেল মিস্ত্রি

  • পুলিশের দাবি, জেরায় অভিযুক্ত স্বীকার করেছে ইউটিউব দেখে টাইম বোমা বানানো শিখেছে সে। বৃহস্পতিবার রজতবাবুর গোডাউনে গিয়ে সেই বোমা রেখে আসে আসানুর।

পাঁশকুড়ায় হার্ডওয়্যার ব্যবসায়ীর গোডাউনে IED উদ্ধারকাণ্ডে মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি পুলিশের। বৃহস্পতিবার রাতে আসানুর আলি নামে এক নির্মাণকর্মীকে গ্রেফতার করে পাঁশকুড়া থানার পুলিশ। সেই হার্ডওয়্যারের দোকানি রজত গাঁতাইতের দোকানে ‘টাইম বোম’ রেখেছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে রামগড় থেকে গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্তকে। শুক্রবার তাঁকে আদালতে পেশ করা হলে বিচারক ৫ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। 

পূর্ব মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার সুনীল কুমার যাদব জানিয়েছেন, ‘অভিযুক্ত আসানুর ভিনরাজ্যে কর্মরত ছিলেন। হায়দরাবাদে মার্বেল মিস্ত্রির কাজ করতেন তিনি। লকডাউনে কাজ চলে যাওয়ায় বাড়ি ফিরে আসেন। এর পর এলাকাতেই কাজ শুরু করেন। সেই কাজ করতে গিয়ে রজতবাবুর দোকানে অনেক টাকা ধার হয়ে গিয়েছিল তার। টাকা শোধ দেওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিলেন দোকানি। এর পরই তাঁকে ভয় দেখাতে টাইম বোমা ফাটানোর পরিকল্পনা আসে তার মাথায়।‘

পুলিশের দাবি, জেরায় অভিযুক্ত স্বীকার করেছে ইউটিউব দেখে টাইম বোমা বানানো শিখেছে সে। বৃহস্পতিবার রজতবাবুর গোডাউনে গিয়ে সেই বোমা রেখে আসে আসানুর। এর পর ফোনে ও SMS-এ তাঁকে হুমকি দিতে থাকে। 

গুদামে গিয়ে টাইম বোমা উদ্ধার করেন রজতবাবু নিজেই। তার পর খবর দেন পুলিশে। ডাক পড়ে বম্ব স্কোয়াডের। অবশেষে বম্ব স্কোয়াড এসে বোমাটি নিষ্ক্রিয় করে। 

বৃহস্পতিবার রাতে আসানুরের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বোমা তৈরির মশলা ও একটি মোবাইল ফোনের নতুন সিম উদ্ধার করেছে পুলিশ।

 

বন্ধ করুন