বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Pujo Tour: পুজোর ভিড় ভালো লাগে না? ঘুরে আসুন রেলি নদীর ধারে কালিম্পংয়ের গ্রামে
বর্ষা শেষ হলেই নতুন করে সেজে উঠবে পাহাড়। সংগৃহীত

Pujo Tour: পুজোর ভিড় ভালো লাগে না? ঘুরে আসুন রেলি নদীর ধারে কালিম্পংয়ের গ্রামে

  • হোম স্টের বারান্দায় গিয়ে দাঁড়ান। চারপাশে সবুজের গালিচা। কাছেই কাঠের ব্রিজ। বিদ্যাং ভিউ পয়েন্ট থেকে পাহাড় যেন আরও মোহময়ী।

পুজোর ছুটিতে কে কোথায় বেড়াতে যাবেন তার জন্য এখন থেকে প্ল্যান শুরু করে দিয়েছেন অনেকেই। পর্যটন ব্যবসায়ীদের আশা করোনা অতিমারির জেরে গত কয়েকবছর পর্যটনে একেবারে ভাটা পড়ে গিয়েছিল। এবারে পুজোর ছুটিতে উত্তরবঙ্গে পর্যটকদের একেবারে ঢল নামতে পারে। সেকারণেই এবার আগে থেকেই পরিকল্পনা করে রাখুন। কলকাতার ভিড় এড়িয়ে অনেকেই থাকতে চান একটু নির্জনে। ভিড়ে ঠাসা দার্জিলিং শহর এড়িয়ে এবার আপনার আদর্শ জায়গা হতেই পারেন কালিম্পংয়ের বিদ্যাং।

কালিম্পং শহর থেকে প্রায় ১৫ কিমি দূরে ছোট্ট পাহাড়ি গ্রাম বিদ্যাং। রেলি নদীর তীরে বিদ্য়াং গ্রাম(Bidyang)। বর্ষা কেটে যাওয়ার পরে আরও সবুজে সবুজে হয়ে ওঠে পাহাড়ি গ্রাম। ছবির মতো সুন্দর। প্রায় ৩ হাজার ফুট উচ্চতায় ছোট্ট, নির্জন জনপদ। ফুলে ফুলে ঢাকা গোটা গ্রাম।

কীভাবে যাবেন?

একেবারে সহজ রুট। এনজেপিতে নামার পর কালিম্পংগামী যে কোনও গাড়ি ধরুন। শেয়ার কার যদি বিদ্যাং না যায় তবে কালিম্পংয়ে নেমে ছোট গাড়ি ভাড়া করে নিতে পারেন। না হলে বাগডোগরা এয়ারপোর্ট, এনজেপি অথবা দার্জিলিং মোড় যেকোনও জায়গা থেকে গাড়ি ভাড়া করে সোজা চলে যান বিদ্যাং। বিদ্যাং গ্রামে কয়েকটি হোম স্টে নতুন করে গড়ে উঠেছে। আগে থেকে বুক করে নিতে পারেন। 

কী দেখবেন?

শিলিগুড়ি থেকে গাড়ি চেপে যখন পাহাড়মুখী হবেন তখন থেকেই শুরু হবে আপনারও দুচোখ মেলে দেখা, মন থেকে হারিয়ে যাওয়ার পালা। হোম স্টের বারান্দায় গিয়ে দাঁড়ান। চারপাশে সবুজের গালিচা। কাছেই কাঠের ব্রিজ। পাথরের উপর দিয়ে বয়ে চলা রেলি নদী। বিদ্যাং ভিউ পয়েন্ট থেকে পাহাড় যেন আরও মোহময়ী। 

বন্ধ করুন