বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ট্যাবলোতে গরিবের পেট ভরবে?বিতর্ক উসকে উলঙ্গ রাজার কথা আনলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য
বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। ফাইল ছবি

ট্যাবলোতে গরিবের পেট ভরবে?বিতর্ক উসকে উলঙ্গ রাজার কথা আনলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য

  • অনুশাসনের ডান্ডা খুব জরুরী। আমরা অনুশাসন মানি না। নিয়মশৃঙ্খলা মানি না। জানিয়েছেন উপাচার্য।

সাধারণতন্ত্র দিবসের ট্যাবলো বিতর্ককে ঘিরে কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যে সংঘাত কমেনি এখনও। তার মধ্যেই সেই ট্যাবলোর কথা টেনে নতুন করে বিতর্ক উসকে দিলেন বিশ্বভারতীয় উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। উলঙ্গ রাজার প্রসঙ্গও তুলে আনলেন তিনি। তাঁর সাফ কথা, আজকের দিনে তুচ্ছ সব ইস্যু নিয়ে আমরা নিজেদের মধ্যে লড়াই করছি। কোথায় কী স্ট্যাচু হবে, কোথায় কোন ট্যাবলো যাবে এটা এখন বড় ইস্যু। এই ট্যাবলো যদি যেত বা বড় কোনও স্ট্যাচু তৈরি করা হত তাহলে যারা গরিব মানুষ রয়েছেন তাদের কি পেট ভরবে? গ্রামের মানুষের দুঃখ দুর্দশা কমবে? এখানেই থেমে থাকেননি তিনি। উপাচার্য বলেন, এই সব প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় এসেছে। আজকে ভারতে ৩৪ শতাংশ মানুষ দুবেলা খেতে পান না। কিন্তু কেউ আমরা সবার সামনে বলতে পারি না, রাজা তুমি ল্যাংটা।

কত মানুষ আদর্শগতভাবে রাবিন্দ্রীক, আশ্রমিক ভাবনা প্রতিফলিত করতে পারবেন তানিয়েও সংশয় প্রকাশ করেন তিনি। উপাচার্য বলেন, আজকে আমরা রাবীন্দ্রিক বলতে আমাদের চোখে জল পড়ে। আর যখন বলা হয় রাবীন্দ্রিক, আশ্রমিক হতে হলে গুরুদেবের ভাবনাচিন্তা, আদর্শ প্রতিফলিত করতে হবে জানি না আমাদের মধ্যে কতজন এগিয়ে আসবেন। অনুশাসনের ডান্ডা খুব জরুরী। আমরা অনুশাসন মানি না। নিয়মশৃঙ্খলা মানি না। গুরুদেব যখন বলেছিলেন আমরা সবাই রাজা আমাদের এই রাজার রাজত্বে। তার মানে এই নয় যে মাৎস্যন্যায়। জানিয়েছেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য। 

 

বন্ধ করুন