বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কার্ড থাকা সত্ত্বেও দেওয়া হচ্ছে না রেশন, ডিলারকে আটকে রেখে বিক্ষোভ করল গ্রামবাসীরা
রেশন না পেয়ে বিক্ষোভ এলাকাবাসীদের। প্রতীকী ছবি (Reuters)
রেশন না পেয়ে বিক্ষোভ এলাকাবাসীদের। প্রতীকী ছবি (Reuters)

কার্ড থাকা সত্ত্বেও দেওয়া হচ্ছে না রেশন, ডিলারকে আটকে রেখে বিক্ষোভ করল গ্রামবাসীরা

  • ডিলারের বিরুদ্ধে রেশন না দেওয়ার অভিযোগ উঠল। এই অভিযোগে রেশন ডিলারকে কার্যত আটকে রাখলেন গ্রামবাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়া জেলার নাকাশিপাড়া থানা এলাকার চন্দনপুরে।

সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে ১৬ই নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে গিয়েছে দুয়ারে রেশন প্রকল্প। এবার থেকে ১০০ শতাংশ বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে রেশন। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে দলীয় ইশতেহারে দুয়ারে রেশন প্রকল্পের কথা উল্লেখ করেছিল তৃণমূল। আর সরকারি এই প্রকল্পকে দুই হাত তুলে সমর্থন জানিয়েছিল আমজনতা। এই প্রকল্পের ফলে রেশন নিতে আর ডিলারের কাছে যেতে হবে না। বিভিন্ন আইনি জটিলতা কাটিয়ে ছাড়পত্র পেয়েছে রাজ্য সরকারের এই প্রকল্প। কিন্তু এরই মধ্যে ডিলারের বিরুদ্ধে রেশন না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এই অভিযোগে রেশন ডিলারকে কার্যত আটকে রাখলেন গ্রামবাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়া জেলার নাকাশিপাড়া থানা এলাকার চন্দনপুরে।

বর্তমানে দরিদ্র মানুষদের জন্য রেশন সামগ্রীর পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে। এর ফলে সংসার চালাতে গিয়ে সমস্যার সুরাহা হয়েছে অনেকটাই। কিন্তু বৈধ রেশন কার্ড থাকা সত্ত্বেও ডিলার ওই এলাকার বাসিন্দাদের ঠিকমত দিচ্ছে না বলে অভিযোগ তুলেছেন গ্রামবাসীরা। তাদের অভিযোগ, যতবারই রেশন আনার জন্য যাওয়া হচ্ছে ডিলার তাদের ফিরিয়ে দিচ্ছেন। বলা হচ্ছে রেশনের সামগ্রী নেই। এ নিয়ে ডিলারকে একাধিকবার বলেও কোন কাজ না হওয়ায় অবশেষে গ্রামবাসীরা ডিলারকে ঘিরে বিক্ষোভ করেন। তাদের অভিযোগ, এলাকার প্রায় আড়াই হাজারের বেশি মানুষ কার্ড থাকা সত্বেও রেশন পাচ্ছেন না।

যদিও রেশন ডিলার তার সাফাইয়ে জানিয়েছেন, যে সমস্ত রেশন কার্ড গ্রামবাসীরা নিয়ে আসছেন সেগুলি এখন অবৈধ। খাদ্য দফতর থেকে কার্ডগুলো বাতিল করা হয়েছে । এই কারণে গ্রাহকদের রেশন দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে তিনি দাবি করেছেন। কিন্তু তারপরেও বিক্ষোভ চালিয়ে যান গ্রামবাসীরা। পরে অবশ্য পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

উল্লেখ্য, দুয়ারে রেশন প্রকল্পের বিরোধিতা করে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন ডিলারদের একাংশ। তাদের বক্তব্য ছিল, রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কোন রকমের আর্থিক সাহায্য করা না হলে তাদের পক্ষে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে রেশন দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ এর জন্য তাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিকাঠামো এবং লোকবল নেই। যদিও এ নিয়ে ডিলারদের আপত্তিতে সম্মতি জানায় নি কলকাতা হাইকোর্ট। এর পরেই হাইকোর্ট থেকে সবুজ সংকেত পেয়ে দুয়ারে রেশন প্রকল্প চালু হয়ে যায়।

 

বন্ধ করুন