বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দরকারে বুথ জ্যাম করে ভোট করাবো, অনুব্রতর সামনে বেফাঁস বলে ফেললেন তৃণমূল কর্মী
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

দরকারে বুথ জ্যাম করে ভোট করাবো, অনুব্রতর সামনে বেফাঁস বলে ফেললেন তৃণমূল কর্মী

  • সভায় পাইকার ২ নম্বর পঞ্চায়েতের ২৫০ নম্বর বুথের তৃণমূল নেতা নীলরতন মাহারাকে অনুব্রত মণ্ডল প্রশ্ন করেন, কী করে ভোট বাড়াবেন? জবাবে নীলরতনবাবু বলেন, ‘ভোট বাড়াবোই। দরকারে বুথ জ্যাম করে ভোট করব।’

অনুব্রত মণ্ডলের বুথ ভিত্তিক কর্মী সম্মেলনে ফের কেলেঙ্কারি। এবার দলের নির্বাচনী স্ট্র্যাটিজি ফাঁস করে দিলেন এক তৃণমূলকর্মী। অনুব্রতর মণ্ডলের প্রশ্নের মুখে তিনি বললেন, ‘ভোট বাড়াতে দরকার হলে বুথ জ্যাম করে ভোট করব।’ একথা শুনেই ওই কর্মীকে থামিয়ে দেন অনুব্রত। তবে কর্মিসভা থেকে বেরিয়েও নিজের মন্তব্যে অনড় থাকেন ওই তৃণমূলকর্মী। 

বিধানসভা নির্বাচনের আগে সংগঠনের হাল হকিকত জানতে গত প্রায় ১ মাস ধরে বীরভূম জেলা জুড়ে বুথ ভিত্তিক কর্মিসভা করছেন দলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। বৃহস্পতিবার তেমনই একটি কর্মিসভা ছিল হিয়াতনগড়ে। সেখানে এক মাদ্রাসায় আয়োজন হয়েছিল তৃণমূলের কর্মী সম্মেলনের। 

সভায় পাইকার ২ নম্বর পঞ্চায়েতের ২৫০ নম্বর বুথের তৃণমূল নেতা নীলরতন মাহারাকে অনুব্রত মণ্ডল প্রশ্ন করেন, কী করে ভোট বাড়াবেন? জবাবে নীলরতনবাবু বলেন, ‘ভোট বাড়াবোই। দরকারে বুথ জ্যাম করে ভোট করব।’

সঙ্গে সঙ্গে ওই ব্যক্তিকে থামিয়ে দেন অনুব্রত। বলেন, না না ওসব করলে হবে না। সভা থেকে বেরিয়েও নিজের মন্তব্যে অনড় থাকেন নীলরতন বাবু। বলেন, ২০০৩ সালে তৃণমূলে যোগ দিয়েছি। তার আগে বামফ্রন্টে ছিলাম। দরকারে বুথ জ্যাম করে ভোট করাবো। কিন্তু ভোটে এবার জিতবোই। 

তৃণমূল নেতার দাবি, কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করেও কিছু করতে পারবে না নির্বাচন কমিশন। কারণ কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে বুথের ভিতর। গ্রাম জ্যাম করে দেবেন তাঁরা।

গত কয়েক বছরে যখনই নির্বাচন হয়েছে, শাসকদলের বিরুদ্ধে রিগিং ও বুথ জ্যামের অভিযোগ তুলেছে বিরোধীরা। এদিন তৃণমূল নেতার বেফাঁস মন্তব্যে স্পষ্ট সেই  অভিযোগ একেবারে অসাড় নয়।

 

বন্ধ করুন