বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > জরিমানা আদায় করতে গিয়ে সমস্যায় ট্রাফিক পুলিশ, থানাকে সহযোগিতার নির্দেশ
জরিমানা আদায় করতে গিয়ে সমস্যায় ট্রাফিক পুলিশ, থানাকে সহযোগিতার নির্দেশ। প্রতীকী ছবি। (HT_PRINT)

জরিমানা আদায় করতে গিয়ে সমস্যায় ট্রাফিক পুলিশ, থানাকে সহযোগিতার নির্দেশ

  • জরিমানার পরিমাণ কয়েকগুণ বেড়ে যাওয়ায় ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে সাধারণ মানুষের মধ্যে বচসা লেগেই থাকছে।

প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন থেকেই নতুন জরিমানা বিধি লাগু করেছে কলকাতা ট্রাফিক পুলিশ। জরিমানার পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে কয়েক গুণ। সেইমতই রাস্তায় ট্রাফিক আইন ভঙ্গকারীদের কাছ থেকে জরিমানা করেছে ট্রাফিক পুলিশ। কিন্তু, জরিমানার পরিমাণ কয়েকগুণ বেড়ে যাওয়ায় ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে সাধারণ মানুষের মধ্যে বচসা লেগেই থাকছে। অনেক ক্ষেত্রেই এরফলে কঠিন পরিস্থিতির মুখে পড়তে হচ্ছে ট্রাফিক পুলিশদের। সেই কথা মাথায় রেখেই ট্রাফিক পুলিশকে সমস্ত রকম ভাবে সহযোগিতা করার জন্য নির্দেশ দিল লালবাজার।

পথ দুর্ঘটনা কমানোর জন্য কলকাতা ট্রাফিক পুলিশ এই উদ্যোগ নিলেও তা ভালো চোখে দেখছেন না অনেকেই। যার ফলে জরিমানা আদায় করতে গিয়ে ঝামেলার মুখে পড়তে হচ্ছে ট্রাফিক পুলিশকে। লালবাজারের তরফে থানাগুলিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ট্রাফিক পুলিশ কোনও কঠিন পরিস্থিতির মুখে পড়লেই সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়ে ট্রাফিক পুলিশকে সহযোগিতা করতে হবে। পাশাপাশি নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে হবে ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে। এরজন্য কলকাতার সমস্ত থানাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, জরিমানা বৃদ্ধির প্রতিবাদে সরব হয়েছে বেসরকারি গণপরিবহন সংগঠনগুলি। তাদের দাবি অবিলম্বে জরিমানার পরিমাণ কমাতে হবে ।

হেলমেট ছাড়া বাইক চালানোর ক্ষেত্রে আগে যেখানে জরিমানা ছিল ১০০ টাকা এখন তা বাড়িয়ে ৫০০ টাকা করা হয়েছে। লালবাজার সূত্রের খবর, প্রথম দিন নতুন ট্রাফিক আইনে মোট ১৯১৫টি মামলা হয়েছে। যার মধ্যে বেআইনিভাবে গাড়ি পার্কিংয়ের অভিযোগে মামলা হয়েছে ৯১৫ টি। বেআইনি পার্কিংয়ের ক্ষেত্রেও জরিমানার অঙ্ক বাড়িয়ে ১০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫০০ টাকা করা হয়েছে।

নো এন্ট্রি জোনে গাড়ি প্রবেশের দায়ে প্রথম দিন ১১ টি মামলা হয়েছে। এছাড়াও হেলমেট ছাড়া বাইক চালানোর ক্ষেত্রে মোট মামলা হয়েছে ৪০৯ টি। দ্রুত গতিতে গাড়ি চালানোর দায়ে মামলা হয়েছে১০৭ টি । এক্ষেত্রেও জরিমানা বাড়িয়ে ৩০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা করা হয়েছে।

বন্ধ করুন