বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দেখে লেখা হবে না তো? ৫০ নম্বরের গৃহপাঠ পরীক্ষার ভাবনা নিয়ে প্রশ্ন শিক্ষকদের
স্কুল, (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
স্কুল, (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

দেখে লেখা হবে না তো? ৫০ নম্বরের গৃহপাঠ পরীক্ষার ভাবনা নিয়ে প্রশ্ন শিক্ষকদের

তাঁরা জানিয়েছেন, ইউটিউব চ্যানেল দেখে পড়ুয়ারা যাতে উত্তর দেওয়ার সুযোগ না পায়, সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে আদর্শ গৃহপাঠের পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করছে শিক্ষা দফতর। প্রথম থেকে দশম শ্রেণির জন্য ৫০ নম্বরের এই পরীক্ষা নেওয়া হবে। পুজোর পরেই রাজ্যে স্কুল খোলার ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছে রাজ্য সরকার। এরই পাশাপাশি এবার গৃহপাঠের ভিত্তিতে পরীক্ষা নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হল।

শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, প্রথম থেকে দশম শ্রেণির জন্য ৫০ নম্বরের সেই গৃহপাঠ পরীক্ষার প্রশ্নমালা আপলোড করা হয়েছে। এই প্রশ্নগুলি সমাধান করে পড়ুয়াদের জমা দিতে হবে। এই প্রসঙ্গে শিক্ষা দফতরের এক আধিকারিক জানান, প্রতিটি বিষয়ে সামগ্রিকভাবে ছাত্রছাত্রীরা কতটা শিখেছে, কোনটায় কতটা খামতি রয়েছে, সেটা বুঝে নিতেই এই পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। পড়ুয়াদের খামতিগুলি ধরা পড়লে শিক্ষক শিক্ষিকাদের পাঠদানে সুবিধা হবে। তাহলে শিক্ষক-শিক্ষিকারাও বুঝে নিতে পারবেন, কোনটার উপর বেশি জোর দিতে হবে? শিক্ষক মহলের বক্তব্য, ইউটিউব চ্যানেল দেখে পড়ুয়ারা যাতে উত্তর দেওয়ার সুযোগ না পায়, সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

এর আগেও স্কুলের তরফে পড়ুয়াদের জন্য গৃহপাঠ দেওয়া হত। করোনা পরিস্থিতিতে এই বিশেষ নিয়ম চালু করা হয়েছিল। অভিভাবকরা যখন স্কুলে মিড ডে মিল নিতে আসেন, তখনই তাঁদের হাতে প্রতিটি বিষয়ে গৃহপাঠ তুলে দেওয়া হয়। গৃহপাঠে নম্বর দেওয়ার প্রক্রিয়া চালু থাকলেও প্রতিটি বিষয়ে পূর্ণমান সমান ছিল না বলে শিক্ষক-শিক্ষিকারা অভিযোগ জানিয়ে আসছিলেন। এর ফলে মূল্যায়নে সমস্যা হচ্ছিল। তবে নতুন এই পদ্ধতিতে এই সমস্যা অনেকটাই মিটবে বলে আশা ওয়াকিবহাল মহলের।

াকিবহাল মহলের।

বন্ধ করুন