বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাস অধিগ্রহণ করে চালিয়ে দেখুক, ঠেলা বুঝবে সরকার, কটাক্ষ বাস মালিকদের
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

বাস অধিগ্রহণ করে চালিয়ে দেখুক, ঠেলা বুঝবে সরকার, কটাক্ষ বাস মালিকদের

  • বাসমালিকদের একাংশ অবশ্য আইনি পথে হাঁটার পরিকল্পনা করছেন। তাঁদের কথায়, সরকারের কাছে আইন থাকলে আমাদের কাছেও আছে। আমরা আদালতের দ্বারস্থ হব।

বেসরকারি বাস অধিগ্রহণ করে সরকারের চালানোর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেন মালিকরা। তবে তাঁদের প্রশ্ন একটাই, অধিগ্রহণবাবদ বাসের টাকা মিলবে কবে। বাসমালিকদের দাবি, এখনো গত লোকসভা নির্বাচনে বাস অধিগ্রহণের কানাকড়ি ধরায়নি সরকার। এই অবস্থায় ফের অধিগ্রহণ হলে সরকারকে টাকা মেটাতে হবে সাপ্তাহিক হিসাবে।

ওয়েস্ট বেঙ্গল বাস অ্যান্ড মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের কর্তা প্রদীপনারায়ণ বসু জানান, গত লোকসভা নির্বাচনে বাস অধিগ্রহণ বাবদ সরকারের কাছে বাসমালিকদের প্রায় ৫ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। বছর ঘুরলেও সেই টাকার মুখ দেখেননি বাসমালিকরা। লকডাউনের আগে তার মধ্যে ২ কোটি টাকা মেটানোর তোড়জোড় শুরু হয়। কিন্তু লকডাউনের জেরে তাও এখন অন্ধকারে। এর মধ্যে ফের বাস অধিগ্রহণ করলে সরকারকে সাপ্তাহিক চুক্তিতে বাসের ভাড়া মেটাতে হবে। 

বাসমালিকদের দাবি, সরকার বাস চালালে তাদের আপত্তি নেই। চালক ও কনডাক্টর যারা রয়েছেন তারাই থাকবেন। ফলে কারও কাজ হারানোর সম্ভাবনা নেই। বাস মালিকদের অনেকে লুকিয়ে চুরিয়ে বলছেন, বাস চালিয়ে দেখুক, ঠেলা বুঝবে সরকার।

বাসমালিকদের একাংশ অবশ্য আইনি পথে হাঁটার পরিকল্পনা করছেন। তাঁদের কথায়, সরকারের কাছে আইন থাকলে আমাদের কাছেও আছে। আমরা আদালতের দ্বারস্থ হব। সরকার নিজে স্বীকার করছে যে বাসভাড়া বাড়ানোর দরকার। কিন্তু রাজনৈতিক স্বার্থে পদক্ষেপ করছে না তারা। জনস্বার্থের নামে রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করছে সরকার। আমরা আদালতকে এসব জানাব। তার পর যা হওয়ার হবে। 

 

বন্ধ করুন