গত শুক্রবার মুর্শিদাবাদের বড়ঞাঁয় মসজিদে জড়ো হওয়া জনতাকে সরাচ্ছে পুলিশ।
গত শুক্রবার মুর্শিদাবাদের বড়ঞাঁয় মসজিদে জড়ো হওয়া জনতাকে সরাচ্ছে পুলিশ।

ফের পত্রাঘাত! মুর্শিদাবাদে মসজিদে লকডাউন ভাঙা হচ্ছে, রাজ্যকে জানাল কেন্দ্র

  • চিঠিতে লেখা হয়েছে, শিলিগুড়িতে বেশ কিছু অনাবশ্যক দোকান খোলা রয়েছে। যার জেরে বাজারে ভিড় হচ্ছে।

লকডাউনের মধ্যেই মুর্শিদাবাদে বেশ কিছু মসজিদে ধর্মীয় জমায়েত হচ্ছে বলে রাজ্য প্রশাসনকে জানাল কেন্দ্রীয় সরকার। রবিবার কেন্দ্রের পাঠানো এই চিঠিতে শিলিগুড়িতেও লকডাউনের চেহারা ঢিলেঢালা বলে অভিযোগ করা হয়েছে। সঙ্গে কঠোর ভাবে লকডাউন বলবৎ করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারকে।

চিঠিতে লেখা হয়েছে, শিলিগুড়িতে বেশ কিছু অনাবশ্যক দোকান খোলা রয়েছে। যার জেরে বাজারে ভিড় হচ্ছে। অবিলম্বে এই দোকানগুলি বন্ধ করানোর নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

এছাড়া, ট্রাক ড্রাইভার, খালাসি, অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের যাতায়াতের ব্যবস্থা করতে হবে প্রশাসনকে। এছাড়া ময়দা, আটা, ডাল, তেলের কল খোলা থাকবে বলে জানানো হয়েছে চিঠিতে। তবে সব জায়গায় শ্রমিকদের কাজ করতে হবে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের জারি করা নির্দেশিকা মেনে।

বলে রাখি, গত শুক্রবার মুর্শিদাবাদের বড়ঞাঁর এক মসজিদে লকডাউন ভেঙে নমাজ পড়তে জড়়ো হয় প্রায় ১,০০০ মানুষ। তাদের সেখান থেকে সরাতে ময়দানে নামতে হয় পুলিশকে।


বন্ধ করুন