বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > একবালপুরে তরুণী খুনের ঘটনায় গ্রেফতার দম্পতি, জেরায় কবুল দোষ
একবালপুরে তরুণী খুনের ঘটনায় গ্রেফতার দম্পতি, জেরায় কবুল দোষ (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)
একবালপুরে তরুণী খুনের ঘটনায় গ্রেফতার দম্পতি, জেরায় কবুল দোষ (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)

একবালপুরে তরুণী খুনের ঘটনায় গ্রেফতার দম্পতি, জেরায় কবুল দোষ

  • সেই ঘটনার তদন্তে প্রথম থেকেই সাজিদের নাম উঠে এসেছিল।

একবালপুরে তরুণী খুনের ঘটনায় এক দম্পতিকে গ্রেফতার করল কলকাতা পুলিশ। রবিবার ভোররাতে প্রথমে শেখ সাজিদ ওরফে রোহিতকে (৩০) গ্রেফতার করা হয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই তাঁর স্ত্রী অঞ্জুম বেগমকেও (২৬) গ্রেফতার করে পুলিশ।

গত বুধবার রাতে একবালপুর থানার এমএম আলি লেনে সাদা চটের বস্তা থেকে সাবা খাতুন ওরফে নয়না নামে (২২) এক তরুণীর দেহ উদ্ধার করা হয়। তাঁর গলায় ফাঁসের দাগ ছিল। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে জানা যায়, শ্বাসরোধ করে সাবাকে খুন করা হয়েছে। সেই ঘটনার তদন্তে প্রথম থেকেই সাজিদের নাম উঠে এসেছিল।

নাম গোপন রাখার শর্তে কলকাতা পুলিশের এক অফিসার জানিয়েছেন,  সাবার সঙ্গে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। তা নিয়েই ঝামেলা শুরু হয়েছিল। তারপর সাবাকে খুন করে সাজিদ। জেরা চলাকালীন ভেঙে পড়েন অঞ্জুম এবং সাবার দেহ ফেলতে সাজিদকে সাহায্য করেন বলে তদন্তকারী অফিসারদের জানান তিনি।

তদন্তে উঠে এসেছে, ছোটোবেলায় সাবার মা মারা যান। তাঁর বাবাও আলাদা থাকতে শুরু করেন। তারপর থেকে দিদিমার সঙ্গে থাকতেন সাবা। কিন্তু গত কয়েক মাস ধরে অপর এক তরুণীর সঙ্গে থাকছিলেন। সাবার পরিজনদের দাবি, মাদকাসক্ত ছিলেন তরুণী। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা নাগাদ তাঁর মোবাইলে একটি ফোন আসে। তারপরই বান্ধবীর বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। সাবার সঙ্গে আর যোগাযোগ করা যায়নি। পরে তাঁর দেহ উদ্ধার করা হয়। একটি অংশের দাবি, যে বান্ধবীর বাড়িতে থাকতেন সাবা, তিনি ও তাঁর মা মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত। সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে সূত্রের খবর।

বন্ধ করুন