বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > HS Exam Routine: দোহাই সংবিধান,ফের বদলাবে সূচি! উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের ভবিষ্যত নিয়ে চলছে ছিনিমিনি
উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের ভবিষ্যত নিয়ে চলছে ছিনিমিনি। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

HS Exam Routine: দোহাই সংবিধান,ফের বদলাবে সূচি! উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের ভবিষ্যত নিয়ে চলছে ছিনিমিনি

  • ভোট পড়লে ওই সব কেন্দ্রের মধ্যে যে সব স্কুল রয়েছে, সেখানে ভোটের প্রস্তুতির ব্যাপার থাকে। ভোটের দিন শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ডিউটিও পড়ে। এই আবহে উচ্চমাধ্যমিক সূচি নিয়ে ফের জল্পনা তুঙ্গে।

পিছোচ্ছে না বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্র ও আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন। এই আবহে ফের পিছোতে পারে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। পরীক্ষার সূচি নিয়ে শীঘ্রই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, ১১ এবং ১৩ এপ্রিল উচ্চমাধ্যমিকের পরীক্ষা রয়েছে। এই আবহে আসানসোল ও বালিগঞ্জে স্কুলগুলিতে কীভাবে বুথ হবে? আর তা হলে পরীক্ষা কীভাবে সম্ভব? তা নিয়ে প্রশ্ন উঁকি দিচ্ছে অভিভাবক, পরীক্ষার্থীদের মনে।

পরীক্ষার জন্য উপনির্বাচন পিছিয়ে দিতে চেয়ে রাজ্য সরকার তরফে নির্বাচন কমিশনকে আর্জি জানানো হয়েছিল। তবে জানা গিয়েছে, কমিশন জানিয়েছে, নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়া সম্ভব নয়। তবে সরকারি ভাবে বুধবার এই নিয়ে রাজ্যকে জানাবে কমিশন। প্রসঙ্গত, কোনও লোকসভা কেন্দ্র বা বিধানসভা কেন্দ্র ফাঁকা হলে সেখানে ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন করা বাধ্যতামূলক। এই আবহে ১৮ এপ্রিলের মধ্যেই উপনির্বাচন শেষ করতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে কমিশন। এই পরিস্থিতিতে ১২ এপ্রিল আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচন ও বালিগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচন করাতে চলছে নির্বাচন কমিশন।

প্রসঙ্গত, পরীক্ষার মধ্যে ভোট পড়লে ওই সব কেন্দ্রের মধ্যে যে সব স্কুল রয়েছে, সেখানে ভোটের প্রস্তুতির ব্যাপার থাকে। ভোটের দিন শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ডিউটিও পড়ে। এই আবহে দুই দিন আগেই পরিবর্তিত সূচি প্রসঙ্গে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য জানান, এই বিষয়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত সিদ্ধান্তের কথা জানানো হবে। কিছুদিন আগে জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষার দিন উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা পড়ে যাওয়ায় সূচি একবার বদল করতে হয়েছে। এবার ফের ভোটের জন্য সূচি বদল হতে পারে বলে আশঙ্কা পড়ুযাদের।

বন্ধ করুন