বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > খড়দায় টাকা উদ্ধারের ঘটনায় ডানলপে তল্লাশি

খড়দায় টাকা উদ্ধারের ঘটনায় ডানলপে তল্লাশি

এই ফ্ল্যাট থেকেই উদ্ধার হয় টাকা।

বৃহস্পতিবার রাতে খড়দার নাথু পাল ঘাট রোডের আবাসনের ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালিয়ে ৩২ লক্ষ টাকা উদ্ধার করেন বারাকপুর কমিশনারেটের গোয়েন্দারা। ফ্ল্যাটের মালিক অমিতাভ দাস নিজেকে এলাকায় অধ্যাপক বলে পরিচয় দিতেন বলে জানান স্থানীয়রা।

খড়দায় টাকা উদ্ধারের ঘটনায় অভিযুক্ত অমিতাভ দাসের প্রতিষ্ঠানে হানা দিল পুলিশ। শনিবার অমিতাভবাবুকে নিয়ে তাঁর ডানলপের নর্দার্ন পার্কের অফিসে হানা দেন বারাকপুর কমিশনারেটের আধিকারিকরা। তবে সেখান থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু উদ্ধার হয়েছে বলে জানা যায়নি।

বৃহস্পতিবার রাতে খড়দার নাথু পাল ঘাট রোডের আবাসনের ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালিয়ে ৩২ লক্ষ টাকা উদ্ধার করেন বারাকপুর কমিশনারেটের গোয়েন্দারা। ফ্ল্যাটের মালিক অমিতাভ দাস নিজেকে এলাকায় অধ্যাপক বলে পরিচয় দিতেন বলে জানান স্থানীয়রা। কিন্তু তিনি কোন কলেজের অধ্যাপক তা জানাতে পারেননি কেউ।

শনিবার জানা যায়, ডানলপের নর্দার্ন পার্কে একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালান অমিতাভবাবু। সেখান থেকে দক্ষিণ ভারতের বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাওয়া যায়। মোটা টাকা দিয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং, বি ফার্মার মতো কোর্সে ভর্তি হওয়া যায় কলেজে। সেই টাকারই কমিশন বাড়িতে রাখা ছিল দাবি করেছেন অমিতাভবাবু।

শনিবার অভিযুক্তকে নিয়ে নর্দার্ন পার্কের অফিসে তল্লাশি চালান গোয়েন্দারা। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সেখানে গুরুত্বপূর্ণ কিছু পাওয়া যায়নি। বারাসত ও হাবরায় এই সংস্থার আরও ২টি দফতর রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সেখানে তল্লাশি চালাতে আদালতের অনুমতি চেয়েছেন তদন্তকারীরা। সূত্রের খবর, প্রতিটি ছাত্র ভর্তির জন্য ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত কমিশন পেতেন অমিতাভবাবু।

 

বন্ধ করুন