বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে পদক্ষেপ, কলকাতা পুরসভার গাড়িতে বসছে জিপিএস ট্র্যাকার
কলকাতা পুরসভা ভবন

কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে পদক্ষেপ, কলকাতা পুরসভার গাড়িতে বসছে জিপিএস ট্র্যাকার

  • গত দু’‌বছরে অর্থাৎ ২০২০ থেকে ২০২২ সালে পলি তোলার কাজ হয়েছে তিন লক্ষ ৯২ হাজার ৬৪০ মেট্রিক টন। তারপরও নানা জায়গা থেকে অভিযোগ আসে। নিকাশি নালার পলি তোলার কাজে গিয়ে কলকাতা পুরসভার গাড়ি কাজ না করে অনেক সময় দাঁড়িয়ে থাকে বলে অভিযোগ। কাজে ফাঁকি দেন কর্মীরা।

কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে কড়া পদক্ষেপ করছে কলকাতা পুরসভা। কলকাতা পুরসভার গাড়িতে এবার নজরদারি চালানো হবে। রাস্তায় পুরসভার কাজে দেরি হলে তা আগে জানা যেত না। এবার তা জানার জন্য নিকাশি বিভাগের সব গাড়িতেই বসবে জিপিএস। এখন বর্ষা ঢুকে পড়েছে বঙ্গে। তাই নিকাশি সমস্যার অভিযোগ আসতেই পারে। সেখানে কাজে বেরিয়ে পুরসভার গাড়ি বসে আছে নাকি চলছে তা জানতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

ঠিক কী ঘটেছে কলকাতা পুরসভায়?‌ কলকাতা পুরসভা সূত্রে খবর, পুরসভার অফিসগুলিতে কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে নোটিশ দিয়েছেন কমিশনার বিনোদ কুমার। আচমকা পরিদর্শন করার পরামর্শ দিয়েছেন কমিশনার। কিন্তু সব কাজই তো আর অফিসে বসে হয় না। অনেক কাজে ফিল্ড ওয়ার্ক করতে হয়। রাস্তায় নিকাশির কাজ করেন ফিল্ড ওয়ার্কাররা। অভিযোগ, তাঁরা গাড়ি নিয়ে বেরিয়েও কাজে ফাঁকি দেন। তাই সমস্যার সমাধান হতে চলেছে। এবার সবটাই নজরদারিতে আসবে কলকাতা পুরসভার। এবার জিপিএস ট্র্যাকিং–ই হাতিয়ার।

ঠিক কী বলছেন মেয়র পারিষদ?‌ কলকাতা পুরসভার নিকাশি বিভাগের মেয়র পরিষদ তারক সিং সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘নজরদারি বাড়াতে কোথায় কোন গাড়ি কাজ করছে তা নিজের ঘরে বসেই দেখতে পারব। প্রয়োজনে কোন গাড়ি দীর্ঘক্ষণ এক জায়গায় থাকলে তার উপর খোঁজখবর নেওয়া সম্ভব হবে। কলকাতা পুরসভার নিকাশি বিভাগের ২৪৫ গাড়ি আছে।’‌

উল্লেখ্য, গত দু’‌বছরে অর্থাৎ ২০২০ থেকে ২০২২ সালে পলি তোলার কাজ হয়েছে তিন লক্ষ ৯২ হাজার ৬৪০ মেট্রিক টন। তারপরও নানা জায়গা থেকে অভিযোগ আসে। নিকাশি নালার পলি তোলার কাজে গিয়ে কলকাতা পুরসভার গাড়ি কাজ না করে অনেক সময় দাঁড়িয়ে থাকে বলে অভিযোগ। কাজে ফাঁকি দেন কর্মীরা। তাই গাড়িতে গাড়িতে জিপিএস ট্র্যাকিং বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলকাতা পুরসভা।

বন্ধ করুন