ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

এমআর বাঙুরের আইসোলেশন ওয়ার্ডে করোনার উপসর্গ নিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু

  • রবিবার এমআর বাঙুর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন মধ্য কলকাতার সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউর বাসিন্দা ওই বৃদ্ধ।

ফের করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কায় এমআর বাঙুর হাসপাতালের রোগী ও কর্মীরা। COVID 19-এর উপসর্গ নিয়ে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি এক ব্যক্তির মৃত্যুতে আতঙ্ক ছড়িয়েছে হাসপাতালে। পরিবারের অভিযোগ, একাধিক সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলেও ভর্তি নেওয়া হয়নি ওই ব্যক্তিকে। সোমবার ওই ব্যক্তির মৃত্যুর পর তাঁর লালারসের নমুনা পরীক্ষায় পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত দেহ পাবে না পরিবার।

রবিবার এমআর বাঙুর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন মধ্য কলকাতার সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউর বাসিন্দা ওই বৃদ্ধ। সোমবার তাঁর করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই মৃত্যু হয় তাঁর। এর পর তাঁর লালারসের নমুনা পরীক্ষায় পাঠানো হয়। বৃদ্ধ করোনায় আক্রান্ত হয়ে থাকলে দেহ সৎকার হবে সরকারি উদ্যোগে।

মৃতের পরিজনদের অভিযোগ, বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন ওই প্রৌঢ়। তাঁকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল ও NRS হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও ভর্তি নেননি চিকিৎসকরা। বৃদ্ধ ব্রঙ্কাইটিসে আক্রান্ত বলে জানিয়ে তাঁকে বাড়িতে বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। রবিবার ফের শ্বাসকষ্ট বাড়াবাড়ি হলে তাঁকে এমআর বাঙুর হাসপাতালে নিয়ে যান পরিজনরা। সোমবার সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। বৃদ্ধের দেহে করোনার চিহ্ন মিললে আরও অনেকে সংক্রমিত হয়ে থাকতে পারেন বলে আশঙ্কা পরিবারের। কারণ তাদের কোয়ারেনটাইনে থাকতে নির্দেশ দেননি কেউ।



বন্ধ করুন