বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > PAC-র চেয়ারম্যানের পদ যেতেই খোলস ছেড়ে বেরোলেন মুকুল?
বিজেপি–র জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য মুকুল রায়। ছবি সৌজন্য : টুইটার

PAC-র চেয়ারম্যানের পদ যেতেই খোলস ছেড়ে বেরোলেন মুকুল?

  • গত বছর জুন মাসে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন মুকুল। তৃণমূল ভবনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে দলবদল করেন তিনি। এর পর তাঁকে বিজেপি বিধায়ক বলে দাবি করে PAC-র চেয়ারম্যান পদে বসান স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

PAC চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে প্রথমবার প্রকাশ্যে এসে নিজেকে তৃণমূল বিধায়ক বলে দাবি করলেন মুকুল রায়। সোমবার বিধানসভায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ভোটদান করতে উপস্থিত হয়ে মুকুল রায় বলেন, ‘না না, আমি বিজেপির এমএলএ নই। বিজেপির হয়ে ভোট দিতেও আসিনি। আমি তৃণমূল প্রার্থীকেই ভোট দিলাম।’ প্রশ্ন উঠছে, এবার কি তাহলে মুকুলের বিরুদ্ধে দলত্যাগবিরোধী আইন প্রয়োগ করবেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

গত বছর জুন মাসে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন মুকুল। তৃণমূল ভবনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে দলবদল করেন তিনি। এর পর তাঁকে বিজেপি বিধায়ক বলে দাবি করে PAC-র চেয়ারম্যান পদে বসান স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে মুকুলের অপসারণ দাবি করে বিজেপি। কিন্তু বারবার মুকুলকে বিজেপি বিধায়ক বলেই উল্লেখ করেন বিমানবাবু। বিষয়টি নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয় বিজেপি। স্পিকারকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার নির্দেশ দেয় আদালত। এরই মধ্যে গত মাসে PAC-র সভাপতি পদ থেকে ইস্তফা দেন মুকুল রায়। তার পর সোমবারই প্রথম প্রকাশ্যে এলেন তিনি। আর দৃপ্ত কণ্ঠে জানিয়ে দিলেন তিনি তৃণমূলের বিধায়ক।

এর মধ্যে নিজেও কম হেঁয়ালি করেননি মুকুল। দলবদলের পর কৃষ্ণননগরে বলেছেন, ‘এখানে বিজেপি বিপুল ভোটে জিতবে।’ আবার অনুব্রতর ডাকে বীরভূমে গিয়ে বলেছেন, ‘যা বিজেপি, তাই তৃণমূল।’ বিজেপির দাবি, PAC-র চেয়ারম্যান পদ ধরে রাখতে তৃণমূলের পরিকল্পনামাফিক হেঁয়ালি করছিলেন মুকুল। কিন্তু আদালতের চাপে শেষ পর্যন্ত তা সম্ভব না হওয়ায় এবার খোলশ ছেড়ে বেরিয়েছেন তিনি।

 

বন্ধ করুন