বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বিধাননগর কঙ্কালকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য, ছেলেকে জীবন্ত পুড়িয়ে মেরেছিলেন মা
বিধাননগরে মাহেশ্বরীদের বাড়ি। 
বিধাননগরে মাহেশ্বরীদের বাড়ি। 

বিধাননগর কঙ্কালকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য, ছেলেকে জীবন্ত পুড়িয়ে মেরেছিলেন মা

  • পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১৬ অগাস্ট প্রথমে অর্জুনের মাথায় ভারী জিনিস দিয়ে আঘাত করেন গীতা। আঘাতের জেরে যুবক অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাঁকে জীবন্ত জ্বালিয়ে দেন মা গীতা মাহেশ্বরী।

বিধাননগর কঙ্কালকাণ্ডে আরও ১ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃত গীতা মাহেশ্বরীর বোন বৈদেহীকে গ্রেফতার করেছে বিধাননগর পুলিশ। ধৃতকে ট্রানজিট রিমান্ডে এনে বিধাননগর আদালতে পেশ করেছেন আধিকারিকরা। ওদিকে তদন্তকারীদের দাবি, জীবন্ত জ্বালিয়ে মারা হয়েছিল অর্জুন মাহেশ্বরীকে। আর এই কাজ করেছিলেন তাঁর মা। 

গোয়েন্দারা জানাচ্ছেন, বিধাননগরের বাড়িতে যেদিন অর্জুনকে পুড়িয়ে মারা হয় সেদিন সেখানে ছিলেন বৈদেহী। তিনি ঘটনার সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে যুক্ত। এই ঘটনায় মা গীতা মাহেশ্বরী ও তাঁর আরেক ছেলে বিদুরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তদন্তকারীরা আরও জানিয়েছেন, উদ্ধার হওয়া হাড়গোড়ের ফরেন্সিক পরীক্ষায় জানা গিয়েছে, জীবন্ত অবস্থায় পুড়িয়ে মারা হয়েছিল অর্জুনকে। তাঁকে হত্যা করতে ৪০ কেজি কাঠ কিনেছিলেন গীতা। সঙ্গে গন্ধ চাপা দিতে কিনেছিলেন ৪ কেজি কর্পূর। 

গত ১০ ডিসেম্বর বিধাননগরের এজে ব্লকের ২২৬ নম্বর বাড়িতে পুলিশি তল্লাশিতে উদ্ধার হয় একটি কঙ্কাল। তদন্তে উঠে আসে কঙ্কালটি ওই বাড়িরই বড় ছেলে অর্জুন মাহেশ্বরীর। দীর্ঘদিন বড়ছেলের সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পেরে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন বাবা। 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১৬ অগাস্ট প্রথমে অর্জুনের মাথায় ভারী জিনিস দিয়ে আঘাত করেন গীতা। আঘাতের জেরে যুবক অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাঁকে জীবন্ত জ্বালিয়ে দেন মা গীতা মাহেশ্বরী।

বিধাননগর পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় তদন্ত প্রায় শেষ। এবার চার্জশিট পেশের প্রস্তুতি শুরু করবেন তাঁরা। 

 

বন্ধ করুন