বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাজভবনে হঠাৎ হাজির শুভেন্দু, উপনির্বাচনে ভরাডুবির পর সাক্ষাৎ,‌ কী কথা হল?
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

রাজভবনে হঠাৎ হাজির শুভেন্দু, উপনির্বাচনে ভরাডুবির পর সাক্ষাৎ,‌ কী কথা হল?

  • তখন রাজ্যপাল জানান, তিনি আগের থেকে ভালো আছেন।

উপনির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পরই রাজভবনে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। মঙ্গলবার রাতে তিনি গিয়ে দেখা করলেন। প্রথমে শুভেন্দু রাজ্যপালের স্বাস্থ্যের খোঁজ নেন। তখন রাজ্যপাল জানান, তিনি আগের থেকে ভালো আছেন। তবে কী কারণে শুভেন্দু হঠাৎ ছুটে গেলেন তা স্পষ্ট করে কিছু বলেননি।

সূত্রের খবর, রাজ্যপালকে উপনির্বাচনের ভরাডুবি নিয়ে জানান শুভেন্দু অধিকারী। তখন রাজ্যপাল জানতে চান এই ফলাফল কেন হল?‌ বলে আপনি মনে করেন। সেখানেও সন্ত্রাসের বাতাবরণে ভোট হয়েছে বলে উল্লেখ করেন শুভেন্দু। রাজ্যপাল সব শুনলেও কোনও উত্তর করেননি। পরে তিনি শুভেন্দুকে তাঁর বক্তব্যের নিরিখে লিখিত তথ্য দিতে বলেছেন।

যদিও সাংবাদিকদের কাছে এই নিয়ে কোনও শব্দ খরচ করেননি শুভেন্দু অধিকারী। তিনি আগে বলেছিলেন, উৎসব মরশুমে মানুষের পাশে থাকবেন। তাই বিধানসভার অধিবেশনে যোগ দেবেন না। সেখানে হঠাৎ কলকাতায় এসে রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাৎ বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছিলেন রাজ্যপাল। তখন নয়াদিল্লির এইমসে ভর্তি ছিলেন। এখন সুস্থ হয়ে উঠেছেন তিনি।

উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়ে রাজ্যপাল বলেছিলেন, ‘আমি অত্যন্ত বিব্রতবোধ করছি। গোটা দেশের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গেই হিংসার এমন বীভত্‍স প্রকাশ। রাজ্যে আইপিএস অফিসাররাও ঠিক করে কাজ করছেন না। এমনকী মুখ্যসচিব পর্যন্ত…। রাজ্যে আমলাতন্ত্র এখন রাজনৈতিক দলের দাস। আমলারা জনতার জন্য নয়, সরকারের জন্য কাজ করেন। সাধারণ মানুষ তাঁদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হন। সাংবিধানিক প্রধান হয়ে আমি এটুকুই বলতে পারি।’‌

বন্ধ করুন