বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মুকুল রায় কী বিধায়ক থাকতে পারবেন? ১২ মে চূড়ান্ত ফয়সালা করবেন স্পিকার
মুকুল রায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়
মুকুল রায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

মুকুল রায় কী বিধায়ক থাকতে পারবেন? ১২ মে চূড়ান্ত ফয়সালা করবেন স্পিকার

  • একুশের নির্বাচনের পর মুকুল রায় তৃণমূল ভবনে গিয়ে হাজির হন। তারপরই তাঁর বিধায়ক পদ খারিজ করতে মাঠে নামে বিজেপি। মামলা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত। এই মামলার শুনানি চলছে বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কক্ষে। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে এই মামলার শুনানি করেছেন স্পিকার।

মুকুল রায় কী বিধায়ক থাকছেন?‌ এই প্রশ্নই এখন উঠতে শুরু করেছে রাজ্য–রাজনীতিতে। কারণ তাঁর বিধায়ক পদ খারিজের বিষয়ে রায়দান নিয়ে বিধানসভার অধ্যক্ষ ১২ মে শেষবারের মতো দু’‌পক্ষকে ডেকে পাঠিয়েছেন। গত ৬ মে অবশ্য বিজেপির পক্ষে কেউই উপস্থিত ছিলেন না। শনিবার–রবিবার ছুটির দিন। আ আজ, সোমবার সরকারি ছুটি। তাই দু’‌পক্ষকে ১২ মে তাঁর ঘরে ডাকা হয়েছে।

ঠিক কী বলেছেন অধ্যক্ষ?‌ এই বিষয়ে অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় সোমবার জানিয়েছেন, ১২ মে’‌র পর তিনি তাঁর রায় জানাবেন। আর বিজেপি বিধায়ক অম্বিকা রায় দাবি করেন, আদালতের নির্দিষ্ট করে দেওয়া সময় পেরিয়ে গিয়েছে। স্পিকার এভাবে আদালতকে আবমাননা করেছেন। বিষয়টি আদালত দেখবে। স্পিকার দ্রুত রায় দান করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, একুশের নির্বাচনের পর মুকুল রায় তৃণমূল ভবনে গিয়ে হাজির হন। তারপরই তাঁর বিধায়ক পদ খারিজ করতে মাঠে নামে বিজেপি। মামলা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত। এই মামলার শুনানি চলছে বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কক্ষে। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে এই মামলার শুনানি করেছেন স্পিকার। তাই আগামী ১২ মে কোন সিদ্ধান্ত নেন স্পিকার সেদিকেই তাকিয়ে সবাই।

বিধানসভার পিএসি কমিটির চেয়ারম্যান মুকুল রায়। মুকুল রায়কে বিধায়ক পদে রাখতে চেয়েছিলেন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু কলকাতা হাইকোর্ট সহমত না হওয়ায় চার সপ্তাহের মধ্যে অধ্যক্ষকে সিদ্ধান্ত পূনর্বিবেচনার নির্দেশ দিয়েছিল। বিজেপি পরিষদীয় দলের পক্ষ থেকে রায়সাহেবের বিরুদ্ধে যাবতীয় তথ্য অধ্যক্ষকে জমা দেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করুন