করোনা পরিস্থিতির মধ্যে গরিব মানুষের মুখে দুবেলা অন্ন তুলে দিতে অবশেষে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পাঠানো চাল নিতে রাজি হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার টুইট করে এই সুখবর জানালেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। সঙ্গে তিনি রাজ্য সরকারকে মনে করিয়ে দিয়েছেন এই চাল বিলি করতে হবে স্বচ্ছ ভাবে। রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ চলবে না।

শনিবার সাংবাদিকদের বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছিলেন, করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যের ৬ কোটি মানুষকে ৩ মাস বিনামূল্যে খাওয়ানোর দায়িত্ব নিয়েছে মোদী সরকার। সেজন্য রাজ্য সরকার চাওয়ার আগেই ৫০,০০০ মেট্রিক টন চাল রাজ্যে পাঠানোর জন্য তৈরি করেছ রেখেছে মোদী সরকার। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার সেই চাল নিচ্ছে না। যার ফলে আধপেটা থাকতে হচ্ছে রাজ্যের মানুষকে।


দিলীপবাবুর এই দাবির ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত বদলালো রাজ্য। রাজ্যপাল জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ানের সঙ্গে কথা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব রাজীব কুমারের। তিনি কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনার চাল নিতে পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজি বলে জানিয়েছেন। এর ফলে বিনামূল্যে চাল পাবেন পশ্চিমবঙ্গের মানুষ।

তবে সরকার ও শাসকদলকে দুর্নীতি থেকে দূরে থাকতে সতর্কও করেছেন রাজ্যপাল। তিনি লিখেছেন, এই চাল বিলি করতে হবে স্বচ্ছ ভাবে। রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ থেকে দূরে রাখতে হবে গণবণ্টন ব্যবস্থাকে। যাদের দরকার তারা যেন চালটা পান।

একই সঙ্গে এদিন তিনি জানান, রাজ্যে রেশন দুর্নীতি নিয়ে তিনি সরব হওয়ার পরই এব্যাপারে তৎপর হয়েছে সরকার।



বন্ধ করুন