সরকারি হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা এবার এক সপ্তাহ কাজ করার পরে টানা সাত দিন ছুটি পাবেন। বুধবার এই ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: পিটিআই। (PTI)
সরকারি হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা এবার এক সপ্তাহ কাজ করার পরে টানা সাত দিন ছুটি পাবেন। বুধবার এই ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: পিটিআই। (PTI)

লকডাউনে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে? শ্রমিক-রোগী-পর্যটকদের টাকা পাঠাবে রাজ্য

  • লকডাউনের জেরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়া রাজ্যের শ্রমিক, রোগী ও পর্যটকদের জন্য আর্থিক সাহায্য পাঠাবে রাজ্য প্রশাসন।

রাজ্যের সরকারি হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা এবার এক সপ্তাহ কাজ করার পরে টানা সাত দিন ছুটি পাবেন। বুধবার এই ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সেই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা, লকডাউনের জেরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়া রাজ্যের শ্রমিক, রোগী ও পর্যটকদের জন্য সামান্য হলেও আর্থিক সাহায্য পাঠাবে তাঁর নেতৃত্বাধীন প্রশাসন।

এ ছাড়া রাজ্য পুলিশের শীর্ষ কর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, প্রতিদিন পুলিশকর্মীদের কাজের সময় যাতে কিছুটা কমানো যায়, সে বিষয়ে উদ্যোগ নিতে।

এ দিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘চিকিৎসক, নার্স এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীরা এতটুকু বিশ্রাম পাচ্ছেন না। তাই এবার থেকে তাঁরা এক সপ্তাহ কাজ করার পরে পরের সপ্তাহে বিশ্রাম পাবেন। এতে তাঁদের প্রাণশক্তি বাড়বে। মুখ্য সচিবকে রাজ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বলে বিষয়টি বাস্তবায়িত করতে বলা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, এরা আগেও রাজ্যের পরিযায়ী শ্রমিকদের সাহায্য করার জন্য ১৮টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছিলেন মমতা।

রাজ্যের বেশ কিছু এলাকায় করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় যুক্ত চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা হেনস্থার শিকার হচ্ছেন। এই বিষয়ে এ দিন মমতা বলেন, ‘এমন কমপক্ষে আটটি ঘটনা আমি শুনেছি। নদিয়ার রানাঘাটে এক নার্স তাঁর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গেলে স্থানীয়দের প্রতিবাদের মুখে পড়েন। ভাড়ায় একটি সরকারি ফ্ল্যাটের ব্যবস্থা করে দিয়েছি। তিনি সেখানে থাকতে পারেন।’

বন্ধ করুন