বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > প্রবাসী শ্রমিকরা ফিরতেই বাঁধ ভাঙল সংক্রমণে, রাজ্যে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৩৪৪
প্রতীকি ছবি (PTI)
প্রতীকি ছবি (PTI)

প্রবাসী শ্রমিকরা ফিরতেই বাঁধ ভাঙল সংক্রমণে, রাজ্যে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৩৪৪

  • ভিনরাজ্যে থাকা শ্রমিকরা ফিরলে পশ্চিমবঙ্গে করোনা সংক্রমণ বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও চিকিৎসকরা। বৃহস্পতিবারের সংখ্যায় সেই আশঙ্কাই সত্যি হল।

প্রবাসী শ্রমিকদের নিয়ে ট্রেন পশ্চিমবঙ্গে ঢুকতেই নতুন রেকর্ড গড় পশ্চিমবঙ্গে করোনা সংক্রমণ। বৃহস্পতিবার একদিনে রাজ্যে ৩৪৪ জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। এর আগে গত রবিবার পশ্চিমবঙ্গে ২০৮ জনের দেহে করোনা সংক্রমণ মিলেছিল। এদিনের সংখ্যা ভেঙে দিল সেই রেকর্ড। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃতের সংখ্যা ৬। 

ভিনরাজ্যে থাকা শ্রমিকরা ফিরলে পশ্চিমবঙ্গে করোনা সংক্রমণ বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও চিকিৎসকরা। বৃহস্পতিবারের সংখ্যায় সেই আশঙ্কাই সত্যি হল। এমনিতেই গত কয়েকদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা উর্ধ্বমুখী। এদিন যা নতুন শিখরে পৌঁছল। 

এদিন ৬ জনের মৃত্যুর পর পশ্চিমবঙ্গে ৩০০-র আরো কাছে পৌঁছে গেল মৃতের সংখ্যা। পশ্চিমবঙ্গে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২৯৫। মৃতদের মধ্যে ৩ জন কলকাতা, ২ জন হুগলি ও ১ জন উত্তর ২৪ পরগনার বাসিন্দা। 

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ৯০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন। ফলে মোট করোনামুক্ত ব্যক্তির সংখ্যা হল ১,৬৬৮। 

গত ২৪ ঘণ্টায় যে ৩৪৪ জনের দেহে করোনা সংক্রমণ মিলেছে তার মধ্যে ৮৭ জনই কলকাতার বাসিন্দা। তার পরই রয়েছে হাওড়া। সেখানে আক্রান্ত ৫৫ জন। উত্তর ২৪ পরগনায় আক্রান্ত ৪৯ জন।

কলকাতা ও শহরতলির সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে জেলাও। সেখানেও লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বৃহস্পতিবার উত্তর দিনাজপুরে ৪৬ জন করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। বীরভূমে মিলেছে ২৭ জন করোনারোগী। জেলায় করোনা আক্রান্তরা প্রায় সবাই ভিনরাজ্য থেকে ফেরা কোয়ারেন্টাইনে থাকা শ্রমিক। তবুও বিভিন্ন জেলায় ক্রমবর্ধমান করোনা রোগীর সংখ্যাকে হালকা ভাবে নিচ্ছে না স্বাস্থ্য দফতর। 

 

 

বন্ধ করুন