বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Govt Bus service in Kolkata: পুজোয় বেড়েছে আয়, আগামী সপ্তাহ থেকে কলকাতায় বেশি সংখ্যায় নামবে সরকারি বাস

Govt Bus service in Kolkata: পুজোয় বেড়েছে আয়, আগামী সপ্তাহ থেকে কলকাতায় বেশি সংখ্যায় নামবে সরকারি বাস

কলকাতায় আরও বেশি বাস নামবে। প্রতীকী ছবি

পুজোর আগে আয় কম হওয়ার কারণে জ্বালানির সমস্যা ছিল। তবে সেই সমস্যা এখন মিটেছে। যার কারণ হল পুজোর সময় আয়। সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে, পুজোর সময় গত কয়েক মাসে সরকারি বাসে দৈনিক আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা। সবচেয়ে বেশি আয় করেছে কলকাতা রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম।

করোনা পর্বে গত দু'বছর ধরে মন্দা কাটানোর পর পুজোর সময় সরকারি বাসের আয় অনেকটাই বেড়েছে। তবে উৎসবের মরশুমে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ রোডে সরকারি বাস বন্ধ হয়ে যাওয়ার অভিযোগ করছিলেন যাত্রীদের একটা বড় অংশ। বিশেষ করে ঠাকুরপুকুর, গড়িয়া সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ রুটে ঠিকমতো সরকারি বাস না মেলার অভিযোগ তুলেছেন যাত্রীরা। তাই ওই সমস্ত রুটে আরও বেশি সংখ্যায় সরকারি বাস নামাতে চলেছে রাজ্য পরিবহণ দফতর। ওই রুটগুলিতে আগামী সপ্তাহ থেকে সরকারি বাস নামানো হবে। এছাড়া আরও কিছু রটে শর্তসাপেক্ষে সরকারি বাস চালানো হবে।

পুজোর মরশুমে উত্তরবঙ্গগামী বেসরকারি এসি ও ভলভো বাসের ভাড়া আকাশছোঁয়া

পুজোর আগে আয় কম হওয়ার কারণে জ্বালানির সমস্যা ছিল। তবে সেই সমস্যা এখন মিটেছে। যার কারণ হল পুজোর সময় আয়। সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে, পুজোর সময় গত কয়েক মাসে সরকারি বাসে দৈনিক আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা। সবচেয়ে বেশি আয় করেছে কলকাতা রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম। প্রায় ১ কোটি ৫৩ লক্ষ ৮৪ হাজার টাকার বেশি আয় করেছে এই পরিবহণ সংস্থা। কলকাতা ট্রাম কোম্পানির আয় ৪২ লক্ষের বেশি হয়েছে। এছাড়াও রাজ্য পরিবহণ নিগমের আয় হয়েছে প্রায় ৩৫ লক্ষ। অর্থাৎ সব মিলিয়ে সরকারি বাসে ২ কোটি ৭৪ লক্ষ ৯৬ হাজার টাকারও বেশি আয় হয়েছে। দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, কলকাতা ট্রাম কোম্পানির ৩০০ টি বাসের মধ্যে এখন চলছে ৯০ টি বাস। দ্রুত আরও বেশি সংখ্যায় বাস না নামানো হলে সে ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে বলে মনে করছেন আধিকারিকরা।

এছাড়াও, শীতের সময় ইকোপার্ক, চিড়িয়াখানা থেকে শুরু করে কলকাতার আরও বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে বাসের সংখ্যা বাড়ানোর প্রয়োজন বলে মনে করছেন আধিকারিকরা। কারণ শীত পড়তেই সেখানে মানুষের ঢল নামবে। আর সেই সমস্ত রুটে যাত্রীদের চাহিদা অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ে বাস না চালালে সে ক্ষেত্রে পরিবহণ ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে মনে করছেন আধিকারিকরা।

বন্ধ করুন