বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পার ১১ বছর, জোকা-এসপ্ল্যানেড মেট্রোর লাইন কবে জুড়বে, জানা নেই নির্মাণ সংস্থারও
জোকা থেকে এসপ্ল্যানেড কবে ‌মেট্রোর লাইন জুড়বে, জানা নেই নির্মাণসংস্থারও! ছবি (‌সৌজন্য ফেসবুক)‌
জোকা থেকে এসপ্ল্যানেড কবে ‌মেট্রোর লাইন জুড়বে, জানা নেই নির্মাণসংস্থারও! ছবি (‌সৌজন্য ফেসবুক)‌

পার ১১ বছর, জোকা-এসপ্ল্যানেড মেট্রোর লাইন কবে জুড়বে, জানা নেই নির্মাণ সংস্থারও

  • রাজ্য সরকারকে দেওয়া নথিতে মেট্রো নির্মাণকারী সংস্থা রেলওয়ে বিকাশ নিগম লিমিটেড (আরভিএনএল) জানিয়েছে, মোমিনপুর থেকে এসপ্ল্যানেড পর্যন্ত অংশ মাটির তলা দিয়ে যাবে।

জোকা থেকে এসপ্ল্যানেড কবে ‌মেট্রোর লাইন জুড়বে, তা জানা নেই নির্মাণ সংস্থারও। মেট্রো রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, মোমিনপুর থেকে এসপ্ল্যানেড পর্যন্ত ৫.৫৬ কিলোমিটার অংশের কাজ কবে শেষ হবে, সে বিষয়ে এখনই নিশ্চিত করে কোনও তথ্য বলতে পারছে না- নির্মাণকারী সংস্থা।

রাজ্য সরকারকে দেওয়া নথিতে মেট্রো নির্মাণকারী সংস্থা রেলওয়ে বিকাশ নিগম লিমিটেড (আরভিএনএল) জানিয়েছে, মোমিনপুর থেকে এসপ্ল্যানেড পর্যন্ত অংশ মাটির তলা দিয়ে যাবে। তবে সেই অংশের কাজ কী ভাবে, কবে নাগাদ শেষ করা হবে, সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত কোনও তথ্য তাদের কাছে নেই। ‌

শহরের নির্মীয়মাণ মেট্রো প্রকল্পগুলির মধ্যে গত ১১ বছরে সব চেয়ে ধীর গতিতে কাজ এগিয়েছে জোকা-বিবাদী বাগ প্রকল্পের। জমি-জটে প্রকল্পের নির্মাণ একাধিকবার ব্যাহত হয়েছে। ২০১০ সাল থেকে শুরু হওয়ার পর ১১ বছর কেটে গেলেও এখনও প্রকল্পটি পদে পদে হোঁচট খাচ্ছে। তাছাড়াও মাঝেরহাট সেতুর নির্মাণ পর্বেও দীর্ঘ সময় ব্যাহত হয়েছে ওই মেট্রো প্রকল্পের কাজ। কলকাতার অধিকাংশ মেট্রো প্রকল্পের কাজ দেরিতে শুরু হয়েও কোনওটা উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে, আবার কোনও প্রকল্পের কাজ শেষের মুখে।

২০২১ সালে জোকা থেকে মাঝেরহাট পর্যন্ত মেট্রো চালু হওয়ার কথা থাকলেও এখনও পর্যন্ত তা চালু করা সম্ভব হয়নি। তবে জোকা থেকে তারাতলা পর্যন্ত অংশে লাইন পাতার কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। লকডাউনের মধ্যেই গত বছরের জুলাই-অগস্ট মাসে ওই মেট্রোপথে লাইন পাতার কাজ শুরু হয়। সেই সময়ে মাঝেরহাট সেতুর নির্মাণকাজও অত্যন্ত তৎপরতার সঙ্গে চলছিল। তবে মেট্রো কর্তৃপক্ষকে সেতুর নির্মাণের বিভিন্ন ভারী যন্ত্রপাতি বহনের জন্য রাজ্য পূর্ত দফতরকে জায়গা ছেড়ে দিতে হয়। যে কারণে কাজের গতি খুব বেশি বাড়ানো যায়নি।

গত বছরের অক্টোবরে মাঝেরহাট সেতুর নির্মাণকাজ সম্পূর্ণ হয়। তার পরে গতি আসে মেট্রোর কাজেও। তারাতলা থেকে জোকা পর্যন্ত প্রায় সাড়ে আট কিলোমিটার মেট্রো পথে সাতটি স্টেশন তৈরির কাজ প্রায় সম্পূর্ণ হওয়ার পথে।

মেট্রো সূত্রের খবর, জোকা থেকে বেহালা চৌরাস্তা পর্যন্ত অংশে লাইন পাতার কাজ ইতিমধ্যেই সম্পূর্ণ হয়েছে। ওই অংশের মধ্যে রয়েছে জোকা, ঠাকুরপুকুর, শখেরবাজার ও বেহালা চৌরাস্তা স্টেশন।  তবে ২০১০ সাল থেকে শুরু হওয়ার পর ১১ বছর কেটে গেলেও এখনও প্রকল্পটি পদে পদে হোঁচট খাচ্ছে। তবুও জোকা থেকে তারাতলা ও তারাতলা থেকে মোমিনপুর পর্যন্ত কাজ হওয়ার একটা লক্ষ্যমাত্রা রাজ্য সরকারকে জমা দিয়েছে মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু মোমিনপুর থেকে এসপ্ল্যানেডের কাজ কবে যে শেষ হবে, এখনও পর্যন্ত সে সংক্রান্ত কোনও তথ্য রাজ্যের কাছে জমা পড়েনি।

ওদিকে জোকা থেকে তারাতলা পর্যন্ত ৬.৫ কিলোমিটার এই অংশের কাজ শেষ হওয়ার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে ২০২২ সালের মার্চ পর্যন্ত। তারাতলা থেকে মোমিনপুর পর্যন্ত ২.২৬ কিলোমিটার অংশের কাজ শেষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ২০২২ সালের ডিসেম্বরে। এই পর্যন্ত পুরোটা মাটির উপর দিয়ে মেট্রো যাবে।

বন্ধ করুন