বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌সংবাদমাধ্যমে এত কথা বলার কী আছে?‌’‌, মদনকে ধমক তৃণমূল নেত্রীর
 মদন মিত্র
 মদন মিত্র

‘‌সংবাদমাধ্যমে এত কথা বলার কী আছে?‌’‌, মদনকে ধমক তৃণমূল নেত্রীর

  • গত পুরসভা ভোটের আগে কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্রকে পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল সাহা ও সাংসদ সৌগত রায়ের বিরুদ্ধে তির্ষক মন্তব্য করতে দেখা যায়।

তৃণমূলের নতুন অস্থায়ী কার্যালয়ে সাংসদ, বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠক করতে এসেছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই বৈঠকে পৌঁছোতে কিছুটা দেরি হয় কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্রের। এরপরই দলের অভ্যন্তরীণ সমস্যা নিয়ে সাংবাদমাধ্যমে মুখ খোলায় মদনকে ধমক দিলেন তৃণমূল নেত্রী।

এদিনের বৈঠকে দলের অভ্যন্তরীণ সমস্যা নিয়ে আলোচনা করছিলেন তৃণমূল নেত্রী। তৃণমূল সূত্রে খবর, সেইসময় আচমকাই উঠে দাঁড়াতে বলেন কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্রকে। তাঁকে তৃণমূল নেত্রী প্রশ্ন করেন, ‘‌তুমি, চেয়ারম্যান, সাংসদ সবাই এক একদিকে কেন?‌’‌ জবাবে কামারহাটির বিধায়ক জানান, ‘‌তিনি, চেয়ারম্যান এক দিকেই আছেন।’‌ এরপরই তৃণমূল নেত্রী কামারহাটির বিধায়ককে প্রশ্ন করেন, ‘‌সংবাদমাধ্যমে এত কথা বলার কী আছে?‌’‌ তবে এবারে অবশ্য এর কোনও জবাব দেননি মদন মিত্র। দলের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে সংবাদমাধ্যমের কাছে বলে দেওয়ার বিষয়টি যে তিনি ভালোভাবে নিচ্ছেন না, সেকথা এদিনও বুঝিয়ে দিলেন তৃণমূল নেত্রী। পাশাপাশি দলের মধ্যে নিজেদের মধ্যে বিবাদকে যে তিনি ভালোভাবে নিচ্ছেন না, সেটাও বুঝিয়ে দেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত পুরসভা ভোটের আগে কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্রকে পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল সাহা ও সাংসদ সৌগত রায়ের বিরুদ্ধে তির্ষক মন্তব্য করতে দেখা যায়। পুর নির্বাচনের প্রচারেও তার ছাপ পড়ে। যদি পরে অবশ্য সাংসদ সৌগত রায়ের সঙ্গে মদন মিত্রকে এক মঞ্চে দেখা গিয়েছিল। তবে গোটা বিষয়টি দলীয় নেতৃত্বের নজর এড়ায়নি। এর আগে মদনের ‘‌ফেসবুক লাইভ’‌ খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠলেও কিছুদিন সেই অনুষ্ঠান বন্ধ রেখেছিলেন মদন।

বন্ধ করুন