বাংলা নিউজ > কর্মখালি > কলেজে স্নাতকস্তরে শূন্য আসনে ভর্তির জন্য বীরভূমে চালু অনলাইন পোর্টাল
বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নির্দেশিকা পাওয়ার পরে কলেজে স্নাতকস্তরে পাস ও অনার্স কোর্সে শূন্য আসনে ভর্তির জন্য আবেদন আহ্বান করা হয়েছে।
বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নির্দেশিকা পাওয়ার পরে কলেজে স্নাতকস্তরে পাস ও অনার্স কোর্সে শূন্য আসনে ভর্তির জন্য আবেদন আহ্বান করা হয়েছে।

কলেজে স্নাতকস্তরে শূন্য আসনে ভর্তির জন্য বীরভূমে চালু অনলাইন পোর্টাল

  • পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উচ্চশিক্ষা দফতর ও বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নির্দেশিকা পাওয়ার পরে কলেজে স্নাতকস্তরে পাস ও অনার্স কোর্সে শূন্য আসনে ভর্তির জন্য আবেদন আহ্বান করা হয়েছে।

কলেজে স্নাতকস্তরে আর একবার ভর্তি হওয়ার এবং পছন্দমাফিক বিষয়ে অনার্স পড়ার সুযোগ করে দিতে অনলাইন পোর্টাল খুলল বীরভূমের কলেজগুলি। জেলার কলেজের অধ্যক্ষরা জানাচ্ছেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উচ্চশিক্ষা দফতর ও বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নির্দেশিকা পাওয়ার পরে কলেজে স্নাতকস্তরে পাস ও অনার্স কোর্সে শূন্য আসনে ভর্তির জন্য আবেদন আহ্বান করা হয়েছে।

করোনা আবহে এখন কলেজ খোলার ঝুঁকি নিতে চাইছে না সরকার। সম্প্রতি উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে তা স্পষ্ট করেছেন  শিক্ষামন্ত্রী।  কী ভাবে পঠনপাঠন চলবে, পাঠ্যসূচি কমাতে হবে কি না ইত্যাদি একাধিক বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি কলেজগুলির শূন্য আসন পূরণে ফের চালু পোর্টাল চালুর সিদ্ধান্ত হয় ওই বৈঠকে। 

 বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশিকা অনুযায়ী কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করার সময় দেওয়া হয়েছিল ৪ থেকে ১০ তারিখ। কিন্তু ৪ তারিখ থেকে সেই ব্যবস্থা শুরু করতে পারেনি অধিকাংশ কলেজ।  বোলপুর পূর্ণিদেবী মহিলা মহাবিদ্যালয়, হেতমপুর কৃষ্ণচন্দ্র কলেজে, বীরভূম মহাবিদ্যালয়-সহ বীরভূমের বেশিরভাগ কলেজে ভর্তির পোর্টাল খোলা হয়েছে সোমবার থেকেই। পুরো প্রক্রিয়াটাই হচ্ছে অনলাইনে। ১৬ তারিখ থেকে বীরভূমের কলেজগুলিতে  স্নাতকস্তরে প্রথম সিমেস্টারের অনলাইন ক্লাস শুরু করার নির্দেশ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়। 

বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষরা জানাচ্ছেন, ভর্তি প্রক্রিয়া শেষ হয়ে গেলেও প্রায় প্রতিটি কলেজেই পাশ কোর্স ও অনার্সের বেশ কিছু আসন ফাঁকা রয়েছে। ফের পোর্টাল চালু হলে সেই ফাঁকা আসন পূরণের একটা সম্ভাবনা থাকেই।

কিন্তু পোর্টালের মাধ্যমে কত শতাংশ আসন পূরণ হবে তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে কলেজ শিক্ষকদের মধ্যে। অধ্যক্ষদের একাংশের বক্তব্য, যে সব পড়ুয়া স্নাতক স্তরে ভর্তি হতে চায় এতদিনে  তাদের সকলেই প্রায় কলেজে ভর্তি হয়েছেন। হয়তো হাতে গোনা কিছু পড়ুয়া সেই সুযোগ নিতে পারেনি। তাই পোর্টাল খুললেই প্রচুর সংখ্যায় ভর্তির আবেদন জমা পড়বে এমন না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

 

বন্ধ করুন