বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > ‘‌বিজেপির সঙ্গে অধীর চৌধুরীর একটা বোঝাপড়া হয়ে গিয়েছে’‌, বিস্ফোরক আব্বাস
ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকি। ফাইল ছবি
ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকি। ফাইল ছবি

‘‌বিজেপির সঙ্গে অধীর চৌধুরীর একটা বোঝাপড়া হয়ে গিয়েছে’‌, বিস্ফোরক আব্বাস

  • তিনি অভিযোগ করেন, বিজেপির সঙ্গে অধীর চৌধুরীর গোপন আঁতাত রয়েছে। তাই তাঁরা মালদহ এবং মুর্শিদাবাদে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বহু জায়গায় প্রার্থী দিয়েছেন।

এখনও বাকি দু’‌দফার নির্বাচন। আগের ছয় দফা নির্বাচন একসঙ্গে কাটিয়েছে সংযুক্ত মোর্চা। এখন সেখানে ফাটল দেখা দিল। জোটধর্ম চুলোয় দিয়ে সরাসরি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীকেই কাঠগনায় দাঁড় করিয়ে দিলেন ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের প্রধান আব্বাস সিদ্দিকি। তিনি অভিযোগ করেন, বিজেপির সঙ্গে অধীর চৌধুরীর গোপন আঁতাত রয়েছে। তাই তাঁরা মালদহ এবং মুর্শিদাবাদে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বহু জায়গায় প্রার্থী দিয়েছেন।

ঠিক কী বলেছেন ভাইজান?‌ বৃহস্পতিবার রানিনগর বিধানসভার ইসলামপুর নেতাজি পার্কের জনসভায় আইএসএফ প্রধান পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকি সরাসরি জানিয়ে দেন, ‘‌মুর্শিদাবাদে কংগ্রেসের সঙ্গে আইএসএফের কোনও জোট হয়নি। আমার মনে হয়, বিজেপির সঙ্গে অধীর চৌধুরীর একটা বোঝাপড়া হয়ে গিয়েছে। তাই রানিনগর বিধানসভায় বাম–গণতান্ত্রিক–ধর্মনিরপেক্ষ শক্তির জোটসঙ্গী আইএসএফ মনোনীত ‘খাম’ প্রতীকের প্রার্থী মাসুম রেজাকে আপনারা ভোট দিন।’‌

আব্বাস সিদ্দিকি বিজেপির সমালোচনা করে বলেন, ‘‌সাত বছর আগে বলেছিল সবকা সাথ সবকা বিকাশ। একটাও বিকাশ হয়নি। বরং নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বেড়েছে। বিজেপি ক্ষমতায় আসা মানে অসমের মতো আমাদের ডিটেনশন ক্যাম্পে পাঠাবে। তাই ওদের ভোট দেবেন না। জোটে এই মুর্শিদাবাদে তিনটি ও মালদহে দু’টি আসন চেয়েছিলাম। কিন্তু অধীর চৌধুরী তা মানেননি। তাই আমরা ওই জায়গাগুলোয় প্রার্থী দিয়েছি।’‌

কংগ্রেসের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ করে আব্বাস সিদ্দিকি বলেন, ‘‌কংগ্রেস এতদিন রাজত্ব করেও মুর্শিদাবাদ জেলায় একটাও বিশ্ববিদ্যালয় করেনি। তাই ওদের আর সুযোগ দেওয়ার প্রয়োজন নেই। রানিনগর থেকে এবার খাম চিহ্নে ভোট দিয়ে মাসুম রেজাকে জেতান।’‌ উল্লেখ্য, সিপিআইএম বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বারবার জানিয়েছে, রানিনগর বিধানসভায় কংগ্রেসের ফিরোজা বেগমই হচ্ছেন তাঁদের জোট সঙ্গী ও সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী। তবে এই ফাটল তৃণমূল কংগ্রেসকে বাড়তি অক্সিজেন জোগাবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক কুশীলবরা।

বন্ধ করুন