বাড়ি > বায়োস্কোপ > স্বস্তিকার পালটা জবাব শ্রীলেখাকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলেন তাঁর অভিমত
স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, ছবি ফেসবুক।
স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, ছবি ফেসবুক।

স্বস্তিকার পালটা জবাব শ্রীলেখাকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলেন তাঁর অভিমত

সরগরম টলিউড। এবার তোপ দাগলেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।  শ্রীলেখার মিত্রের লাইভ ভিডিয়োর পরিপ্রেক্ষিতে নিজের ফেসবুক ওয়ালে নাম না করে তুললেন কিছু প্রশ্ন! 

এবার শ্রীলেখা মিত্রকে পালটা জবাব দিলেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধয়ায়। বরাবরই সোজাসাপটা কথা বলার অভ্যেস স্বস্তিকার। গতকাল নিজের ফেসবুকে তিনি পোস্ট করে জানান,

 ‘ছোট্ট প্রশ্ন।যখন কোনও অভিনেত্রী কোনও পরিচালকের সঙ্গে এক বা একের বেশি ছবি করে তখন বলা হয় সে শুয়ে বা প্রেম করে কাজটা পেয়েছে। বেশ। তা আমি এক পরিচালকের সঙ্গে তাঁর জীবনের ১৭টা ছবির মধ্যে আড়াইখানা ছবি করেছি (২টি মুখ্য চরিত্র, ১টি অতিথি শিল্পী)। কিন্তু যেহেতু এই পরিচালকের সঙ্গে সৌমিক হালদার ১১টা, অনুপম রায় ৯টা, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ৭টা, যীশু সেনগুপ্ত ৭টা, অনির্বাণ ভট্টাচার্য ৬টা এবং পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় ৬টা কাজ করেছেন, তাঁরা নিশ্চয় আরও বেশি করে শুয়ে আর প্রেম করে কাজগুলো পেয়েছেন? এনারা তাহলে সবাই উভকামী ও সুযোগসন্ধানী? যুক্তি তো সবার ক্ষেত্রেই এক হওয়া উচিৎ, তাই না? নাকি নিজের খামতি ঢাকতে স্লাটশেমিং শুধু আমাদের মতো 'কুযোগ্য' অভিনেত্রীদের করা হবে যারা একেবারেই অভিনয়টা পারে না? ’

গত তিন দিন ধরে নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রের একটি ইউটিউব ভিডিয়ো।  এক ঘন্টা ন'মিনিটের এই  ভিডিয়োটি তিনি প্রকাশ করেছেন  তাঁর ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেল থেকে। এখানে তিনি সরাসরি আঙ্গুল তুলেছেন টলিউড তথা সম্পূর্ণ বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির একেবারে প্রথম সারির তারকাদের দিকে। তাঁর নিশানায় রয়েছেন প্রসেনজিত চট্টোপাধ্যায়, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত , কৌশিক গঙ্গোপাধয়ায়, সৃজিত মুখোপাধ্যায় সহ বেশ কিছু পরিচালক, প্রযোজকদের  নাম। তাঁর কথা অনুযায়ী সুশান্ত সিং রাজপুতের মতো তিনিও স্বজন পোষণের শিকার হয়েছে বারবার। টলিউডের একজন বলিষ্ঠ অভিনেত্রী হওয়া সত্বেও তাঁকে তাঁর যোগ্য সুযোগ দেওয়া হয় নি। বাদ পড়েছেন নায়িকার চরিত্রের থেকে, পার্শ চরিত্রেই তাঁকে অভিনয় করতে হয়েছে। একটা সময় তিনি মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছিলেন, কিন্তু তিনি আত্মহত্যা প্রবণ নন, তাই পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করে এই ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের জায়গা পাকা করেছেন। একেবারে নাম উল্লেখ করে শ্রীলেখা বলেন, ঋতুপর্ণা এবং বুম্বাদার প্রেমের কারণেই তিনি বাদ পড়েছেন প্রধান চরিত্র থেকে। প্রযোজক অশোক সুরানা কথা দিয়েও তাঁকে কাজ দেন নি। সৃজিত মুখোপাধ্যায় অভিনেত্রীর  খুব ভালো বন্ধু হলেও কাজে নেন নি তাঁকে। ইত্যাদি বহু প্রসঙ্গ উঠে এসেছে শ্রোলেখার ভিডিয়োতে।

শ্রীলেখার এই ভিডিওর পর থেকেই টলি পাড়া সরগরম। বিভিন্ন মহল থেকেই উঠে আসছে নানা মন্তব্য। কেবল স্বস্তিকাই নন, টলিউডের অনেক খ্যতনামা অভিনেতা, অভিনেত্রী, প্রযোজক পরিচালকরা শ্রীলেখার এই বক্তব্য সম্বন্ধে তাঁদের মতামত দিয়েছেন টেলিভিশনে এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে ।

বন্ধ করুন