বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'মেরা নাম জোকার' ফ্লপ, রাজ কাপুরকে পর্যন্ত একঘরে করেছিল ইন্ডাস্ট্রি! তারপর…
'মেরা নাম জোকার' ছবির একটি দৃশ্যে রাজ এবং ধর্মেন্দ্র। ( ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
'মেরা নাম জোকার' ছবির একটি দৃশ্যে রাজ এবং ধর্মেন্দ্র। ( ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

'মেরা নাম জোকার' ফ্লপ, রাজ কাপুরকে পর্যন্ত একঘরে করেছিল ইন্ডাস্ট্রি! তারপর…

  • 'মেরা নাম জোকার' বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ার পর বলিপাড়া প্রায় ছুড়ে ফেলে দিয়েছিল রাজ কাপুরকে।সেই ছবি ফ্লপ হওয়াতে সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছিলেন রাজ কাপুর। তবে আশা ছাড়েননি।

হিন্দি ছবির ইতিহাসে বেশ কয়েকটি কালজয়ী ছবির স্রষ্টা হিসেবে নাম রয়ে গেছে রাজ কাপুরের। এই তালিকায় নাম নেওয়া যায় 'আওয়ারা, 'সঙ্গম, 'শ্রী ৪২০', 'ববি', 'সত্যম শিবম সুন্দরম'-এর মত সব ছবির। রয়েছে আরও। তবে 'মেরা নাম জোকার' বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ার পর বলিপাড়া প্রায় ছুড়ে ফেলে দিয়েছিল এই কিংবদন্তি অভিনেতা-পরিচালককে!

রাজ কাপুরের কাছে স্বপ্নের প্রোজেক্ট ছিল 'মেরা নাম জোকার'। স্বয়ং রাজও ভাবতে পারেননি বক্স অফিসে সশব্দে মুখ থুবড়ে পড়তে পারে এই বিগ বাজেটের ছবি। কিন্তু আদতে তাই হয়েছিল। আর তা হওয়ামাত্রই রাজ্যের বিশ্বাসযোগ্যতা ও জনপ্রিয়তা নিয়ে রীতিমতো উঠে গেছিল প্রশ্ন। সিনেমার ডিস্ট্রিবিউটরের দোল পর্যন্ত এই কিংবদন্তি ব্যক্তিত্বকে আড়ালে 'পাগল' বলতেও ছাড়েননি। এই প্রসঙ্গে ২০১৮ সালে ফিল্মফেয়ারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রাজ-কন্যা রিমা জৈন জানিয়েছিলেন 'মেরা নাম জোকার' তৈরির সুবাদে নিজের সম্পত্তি, ঘরের নানান দামি জিনিসপত্রের সঙ্গে নিজের 'সম্মান'-কেও দাঁওয়ে লাগিয়েছিলেন তাঁর বাবা।

সেই ছবি ফ্লপ হওয়াতে সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছিলেন রাজ কাপুর। তবে আশা ছাড়েননি। নিজের ওপর অগাধ আস্থা ছিল তাঁর। তাইতো 'ববি' ছবি পরিচালনার মাধ্যমে ওরকম ঐতিহাসিক কামব্যাক করতে পেরেছিলেন তিনি। বিখ্যাত কমিক্স 'আর্চি'-র অনুকরণে তৈরি হওয়া এই ছবিতে বুঁদ হয়েছিল আসমুদ্রহিমাচল দর্শক।সদর্পে ফের একবার নিজের হারানো রাজ্যপাট ফিরে পেয়েছিলেন রাজ।

বন্ধ করুন