বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > গল্প চুরির অভিযোগে আইনি নোটিস পেল ‘অপরাজিত’, ক্ষতিপূরণ চাওয়া হল ৫০ লক্ষ টাকার
প্লট হাইজ্যাকের অভিযোগে আইনি নোটিস পেল অপরাজিত-র প্রযোজক।

গল্প চুরির অভিযোগে আইনি নোটিস পেল ‘অপরাজিত’, ক্ষতিপূরণ চাওয়া হল ৫০ লক্ষ টাকার

  • ‘সাধু ব্রাদার্স এন্টারটেনমেন্ট প্রোডাকশন হাউস’ প্রযোজনা সংস্থার তরফে এই আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়া তোলপাড় এই দাবিতে। 

শনিবারই ‘অপরাজিত’র নামে প্লট হাইজ্যাকের অভিযোগ তুলেছিলেন কুণাল ঘোয। এবার শুরু হয়ে গেল আইনি যুদ্ধ। ‘অপরাজিত’র প্রযোজকদের আইনি নোটিস পাঠাল ‘সাধু ব্রাদার্স এন্টারটেনমেন্ট প্রোডাকশন হাউস’। ৫০ লক্ষ টাকার ক্ষতিপূরণ চাওয়া হল। 

‘সাধু ব্রাদার্স এন্টারটেনমেন্ট প্রোডাকশন হাউস’ প্রযোজনা সংস্থার দাবি তাঁদের ‘পথের পাচালী’ বানানোর জার্নি নিয়ে ছবি বানানোর প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছিল ২০১২ সাল থেকেই। আর ওই ভাবনা ‘হাইজ্যাক’ করেই নিজের ছবি বানিয়েছেন অনীক দত্ত। যা মুক্তি পাওয়ার পর প্রবল ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে ‘সাধু ব্রাদার্স’-দের। 

যে নোটিস পেশ করা হয়েছে তাতে বলা হয়েছে,  অনীক দত্ত বা ‘অপরাজিত’র প্রযোজনা সংস্থার তরফে ছবির কোথাও ‘সাধু ব্রাদার্স এন্টারটেনমেন্ট প্রোডাকশন হাউস’-এর কাছে ঋণ স্বীকার করা হয়নি। অথচ এই ভাবনাকে কেন্দ্র করে প্রথম সিনেমা তৈরির পরিকল্পনা তাদেরই মাথায় এসেছিল। এমনকী, এটাও দাবি করা হয়েছে যে ‘বিষয় পথের পাঁচালি’র গল্প অনেককেই শোনানো হয়েছিল ২০১২ সালে প্রযোজক খোঁজার সময়। আর সেই তালিকায় ছিল অপরাজিত’র প্রযোজক ফিরদৌসল হাসানও! আরও পড়ুন: ‘অপরাজিত’ কি টুকে বানানো? তৃণমূলের কুণাল ঘোষের টুইট নিয়ে হৈচৈ

প্রসঙ্গত, কুণান টুইট করেছিলেন, ‘২০১২ সালে নথিভুক্ত ‘পথের পাঁচালী’ তৈরির ছবিটির শুটিং চলছে। নানা কারণে দেরি। এক থিমে ছবি। জেনে নাকি না জেনে? প্রচারের চাপে আসল টিম কোণঠাসা? তাঁদের ছবির কাজ চলছে। সেই ছবিটিও মুক্তি পাবে। টলিউড, থিম কি হাইজ্যাকড হল? তদন্ত হোক।’

 

বন্ধ করুন