বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কেবল চরিত্র ঝিনুকই নয়, ব্যাক্তি প্রমিতাকে ঘিরে অশালীন আক্রমন দর্শকের!
প্রমিতা চক্রবর্তী। ছবি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক।
প্রমিতা চক্রবর্তী। ছবি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক।

কেবল চরিত্র ঝিনুকই নয়, ব্যাক্তি প্রমিতাকে ঘিরে অশালীন আক্রমন দর্শকের!

উত্তপ্ত সোশ্যাল মিডিয়া। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, কখনও বা ‘পয়সার পিশাচ’ আবার কখনও বা কোনও পশুর সঙ্গে তুলনা করে অশালীন মন্তব্যে ভরে উঠছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট। কেবল প্রমিতাই চক্রবর্তীই  নন, তাঁর পরিবারের প্রতিও ক্ষোভ উগরে দিয়েছে দর্শকদের একাংশ। স্বভাবতই মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন তিনি।

 অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক ও নিন্দনীয় ঘটনার শিকার হলেন অভিনেত্রী প্রমিতা চক্রবর্তী। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে মানসিক হেনস্থার শিকার হলেন টেলিভিশনের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী। বেশ কিছুদিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়তে তাঁকে নিয়ে শুরু হয়েছে ট্রোল ও মিমের বন্যা। প্রথম প্রথম বিষয়টিকে প্রমিতা গুরুত্ব দিতে চান নি। অনেক সময়  এমন হতেই পারে যে ডেইলি সোপ বা সিনেমার  কোনও চরিত্র দর্শকের পছন্দ নয়, সেক্ষেত্রে সেই চরিত্রটিকে নিয়ে বিভিন্ন রকম কটাক্ষ  বা বাঁকা মন্তব্য চলতে থাকে দর্শক মহলে। কিন্তু প্রমিতার ক্ষেত্রে প্রতিনিয়ত যেটা ঘটে চলেছে  তা অবিশ্বাস্য এবং ভয়েরও! 

প্রথম থেকেই দর্শকের পছন্দ ছিল না ‘এখানে আকাশ নীল’ ধারাবাহিকের প্রমিতা অভিনিত ‘ঝিনুক সেন’ চরিত্রটিকে। তাই শুরু থেকেই দর্শকদের কাছে প্রায় ভিলেন হয়ে ওঠেন তিনি। সম্প্রতি চরিত্র ঝিনুকের পাশাপাশি ব্যক্তি প্রমিতাকে আক্রমণ করেছে দর্শকদের বিশাল একটা অংশ। ক্রমাগত বেড়ে চলেছে ব্যক্তিগত আক্রোশ। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, কখনও বা ‘পয়সার পিশাচ’ আবার কখনও বা কোনও পশুর সঙ্গে তুলনা করে অশালীন মন্তব্যে ভরে উঠছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট। কেবল প্রমিতাই নন, তাঁর  পরিবারের প্রতিও ক্ষোভ উগরে দিয়েছে দর্শকদের একাংশ। স্বভাবতই  মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন তিনি।

ছবি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক
ছবি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

আনলক পর্বে শুটিং আরম্ভ হওয়ার পর স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংক্রান্ত  নিয়ম অনুসারেই চলছে সব শুটিং। জনপ্রিয় ডেইলি সোপ ‘এখানে আকাশ নীল’ এর শুটিং শুরু হওয়ার কয়েক দিনের মধ্যেই চ্যানেল জানিয়ে দেয় যে, ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্র ‘হিয়া’ অর্থাৎ অনামিকা চক্রবর্তীর বাড়ি কনটেনমেন্ট জোনের অন্তর্ভুক্ত হওয়ারর কারণে তিনি শুটিংয়ে আসতে পারছেন না। অতএব হিয়া চরিত্রটিকে বাদ দিয়ে অন্যভাবে গল্প এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।এই সিদ্ধান্তে মোটেই খুশি ছিলেন না দর্শকরা। হিয়া ও উজানের প্রেমই ছিল এই ধারাবাহিকের মূল আকার্ষণ। লকডাউনের পর হিয়াকে আর দেখা যায় নি, তাঁর বদলে ঝিনুক সেন (প্রমিতা চক্রবর্তী) হাজির হয় উজানের জীবনে। এর আগে সাত ভাই চম্পা ধারাবাহিকে প্রমিতা বাংলার দর্শকের মন কেড়েছিলেন। তবে 'এখানে আকাশ নীল ' ধারাবাহিকে দর্শক কি মেনে নিতে পেরেছেন ঝিনুক সেন কে? নাকি উজান ভুলতে পেরেছে হিয়াক? এই সকল দ্বন্দ্ব নিয়েই শুরু হয়েছিল আনলক পর্বের টেলিকাস্ট। মানুষ অবশ্য বারবার হিয়াকে ফিরিয়ে আনার জন্য চ্যানেলের সোশ্যাল সাইটে দাবি জানিয়ে ছিলেন। অবশেষে সব জল্পনা মিটিয়ে ‘এখানে আকাশ নীল’ এ আবার ফিরে এসেছে হিয়া। এবং এর পর থেকেই শুরু হয়েছে যত ঝামেলা। 

আপাতত সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ জানাবেন প্রমিতা চক্রবর্তী। সাইবার বুলিংয়ের মতো অপরাধকে কোনও ভাবেই ক্ষমা করা যায় না। 

বন্ধ করুন