বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > অবৈধ নির্মাণ মামলা : BMC-র নোটিশের বিরুদ্ধে সোনু সুদের আবেদন খারিজ বম্বে হাইকোর্ট
বড় ধাক্কা খেলেন সোনু সুদ
বড় ধাক্কা খেলেন সোনু সুদ

অবৈধ নির্মাণ মামলা : BMC-র নোটিশের বিরুদ্ধে সোনু সুদের আবেদন খারিজ বম্বে হাইকোর্ট

  • বিএমসির নোটিশকে স্বীকৃতি দিল হাইকোর্ট। পুরসভার দাবি,সোনু স্বভাবসিদ্ধ অপরাধী।

বম্বে হাইকোর্টে বড় ধাক্কা খেলেন সোনু সুদ। বৃহস্পতিবার আদালতে খারিজ হয়ে গেল বিএমসির নোটিশের বিরুদ্ধে দাখিল করা অভিনেতার আবেদন এবং অন্তর্বতীকালীন রেহাইয়ের আর্জি। 

সোনু সুদের আইনজীবী আমোঘ সিং গত বছর অক্টোবরে ১০ সপ্তাহের সময় চেয়েছিলেন বিএমসির জারি নোটিশের প্রেক্ষিতে, পাশাপাশি বিএমসির নির্মাণ ভেঙে ফেলবার কাজ থেকে অব্যহতি চেয়েছিলেন তিনি। এদিন আদালত সোনুর কৌঁসুলিকে নির্দেশ দেয় তাঁর মক্কেলকে এই বিষয় নিয়ে বিএমসির সঙ্গে আলোচনা করতে। এদিন রায়দান করবার সময় বিচারপতি পৃথ্বীরাজ চৌহান সোনুর আবেদন খারিজ করে বলেন, ‘আইন তাঁদেরই একমাত্র সাহায্য করে যারা পরিশ্রমী। এখন বল বিএমসির কোর্টে….আপনারা তাঁদের সঙ্গে কথা বলুন’। 

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, বিচারপতি বলেন, ‘আপনারা অনেক দেরি করে ফেলেছেন, প্রচুর সময় ছিল আপনাদের হাতে’। 

অভিনেতা সোনু সুদ ‘স্বভাবসিদ্ধ অপরাধী’-যিনি হামেশাই অবৈধ নির্মাণকাজ চালান জুহু এলাকার আবসনে, বম্বে হাইকোর্টকে দিন কয়েক আগেই এমনটাই জানিয়েছিল বৃহন্মুম্বই পুরসভা (BMC)। অবৈধ নির্মাণের অভিযোগ এনে জানুয়ারির শুরুতেই সোনু সুদের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ জমা দেয় বৃহন্মুম্বই পুরসভা। এরপর বিএমসির নোটিশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন সোনু সুদ।

গত বছর অক্টোবর মাসে সোনুর বিরুদ্ধে অবৈধ নির্মাণের নোটিশ এনেছিল বিএমসি। এরপর নগর দায়রা আদালতে সেই নোটিশকে চ্যালেঞ্জ জানান অভিনেতা, তবে ডিসেম্বরেই সোনুর আবেদন খারিজ করে দেয় নিম্ন আদালত। বিএমসির দাবি জুহুতে অবস্থিত ছয় তলার শক্তি সাগর আবাসনকে কোনওরকম অনুমতি না নিয়েই হোটেলে রূপান্তরিত করে ফেলেছেন সোনু সুদ। এই অবৈধ নির্মাণের যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সোনু।

হলফনামায় বিএমসি বম্বে হাইকোর্টকে জানিয়েছে- আবেদনকারী স্বভাবসিদ্ধ অপরাধী, এবং অবৈধ নির্মাণের বাণিজ্যিক ফায়দা তুলতে চায়। সেইকারণেই ভেঙে দেওয়া অংশ ফের একবার নির্মাণ কাজ শুরু করেছিল যাতে আবাসনটিকে হোটেলে রূপান্তরিত করা যায় লাইলেন্স ডিপার্টমেন্টের তরফে কোনওরকম অনুমতি না নিয়েই।

এই মামলায় এখনও পর্যন্ত সোনুর বিরুদ্ধে কোনওরকম এফআইআর দায়ের করেনি মুম্বই পুলিশ।

বন্ধ করুন