বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > চল্লিশের কোঠায় এসে সেরা অনুভূতির ছোঁয়া, ভালো চরিত্রের জন্য প্রস্তাব পাচ্ছেন দিয়া
চল্লিশকে অন্যভাবে উপভোগ করছেন দিয়া মির্জা

চল্লিশের কোঠায় এসে সেরা অনুভূতির ছোঁয়া, ভালো চরিত্রের জন্য প্রস্তাব পাচ্ছেন দিয়া

  • হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে কাজ করছেন অভিনেত্রী। দিয়া মির্জা বলেছেন যে ৪০ বছর বয়সে এসে তাঁর জীবনের সেরা চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ এসেছে।

২০২১ সালের ডিসেম্বরে চল্লিশে পা রাখেন অভিনেত্রী দিয়া মির্জা। অভিনেত্রীর কথায়, মাইলফলক বয়স পেরিয়ে এসে কেরিয়ারে সেরা ভূমিকায় অভিনয় করার সুযোগ পাচ্ছেন তিনি। আরও উল্লেখ করেছেন, এর আগে ৩৫ বছর বয়সের পরে মহিলাদের জন্য বাছাই করা কয়েকটি ভূমিকা ছিল। এখন জিনিসগুলির পরিবর্তন হয়েছে। তাঁদের বিভিন্ন চরিত্রের প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে।

২০০১ সালে ‘রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে’ ছবি দিয়ে বলিউডে ডেবিউ হয় দিয়ার। তারপর বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন তিনি। তবে বর্তমানে যেমনটা কাজের সুযোগ পাচ্ছেন, এখন পর্যন্ত তাঁর কেরিয়ারের সেরা বলে মন্তব্য করেছেন। 

পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেন, ‘বয়স বাড়লে আমাদের অনেক কিছুর সঙ্গে লড়াই করতে হয়। আমি খুশি, যে সুযোগগুলি আমার কাছে আসছে অনেক ভাবে এই সমস্যার সমাধান করতে পারছি। যখনই আমি একটি ভালো ছবিতে শক্তিশালী চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পাই, সেই আদর্শকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখেছি আমি। ৩৫ পেরোলে মহিলাদের এক ধরনের চরিত্রে ঠেলে দেওয়ার প্রবণতাকে চ্যালেঞ্জ করছি আমি। বয়স বেড়েছে বলে আরও শক্তিশালী চরিত্রে অভিনয় করব, এই মানসিক জোর রাখি।’

২০২০ সালে ‘থাপ্পড়’ ছবিতে শেষবার দেখা গিয়েছিল দিয়াকে। একটি সহায়ক ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন তিনি। অভিনেত্রী বলেছিলেন, এই চরিত্রের জন্য যে 'ভালোবাসা, সম্মান এবং স্বীকৃতি' পেয়েছেন তা তিনি কল্পনাও করেননি কখনও। 

দিয়াকে পরবর্তীতে সামাজিক-রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের ছবিতে দেখা যাবে। অনুভব সিনহার পরিচালনায় এই ছবি। এর আগে অনুভব সিনহার সঙ্গে ‘থাপ্পড়’, ‘দশ বাহানে’ এবং ‘ক্যাশ’ ছবিতে কাজ করেছিলেন দিয়া। এছাড়া অভিনেত্রীর হাতে রয়েছে ‘ধক ধক’। ‘থাপ্পড়’-এর সহ-অভিনেত্রী তাপসী পান্নুর প্রযোজনায় তৈরি হচ্ছে এই ছবি। ‘ধক ধক'-এ আরও অভিনয় করছেন রত্না পাঠক শাহ, ফতিমা সানা শেখ এবং সঞ্জনা সাংঘি।

বন্ধ করুন