বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘সন্তানহারা’ মিমি! আদরের চিকুকে হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন নায়িকা
পোষ্যের মৃত্যুতে শোকর্ত মিমি (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
পোষ্যের মৃত্যুতে শোকর্ত মিমি (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

‘সন্তানহারা’ মিমি! আদরের চিকুকে হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন নায়িকা

‘সব কষ্টের শেষ, এবার শান্তিতে থাক', চারপেয়ে সন্তানকে কবরস্থ করে একথাই কান্নাভেজা কন্ঠে জানালেন মিমি চক্রবর্তী। 

‘তুই আজীবনের জন্য আমার অর্ধেকটা সঙ্গে নিযে চলে গেলি’- সন্তানহারা মিমির গলায় ঝরে পড়ল এই আক্ষেপ। জীবনের গোটা জগত জুড়ে তাঁর দুই চারপেয়ে সন্তান- চিকু আর ম্যাক্স। চিকুকে নিজের বড়ছেলে বলেই হামেশা পরিচয় দিতেন মিমি। শনিবার না ফেরার দেশে চলে গেল চিকু। সন্তান হারানোর যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন মিমি। মারণ রোগ ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই চালাচ্ছিল মিমি আট বছরের পোষ্য চিকু। গত ফেব্রুয়ারি মাসেই ল্যাব্রাডার প্রজাতির এই সারমেয়র ক্যানসার আক্রান্ত হওয়ার খবর অনুরাগীদের কাছে জানিয়েছিলেন তিনি, কাতর প্রার্থনা করে সাহায্য চেয়েছিলেন। 

কলকাতার চিকিত্সকরা হাল ছেড়ে দেওয়ায় চিকুকে নিয়ে চেন্নাইতে পারি দেন মিমি। তবুও শেষরক্ষা হল না। ‘ছেলে’কে কবর দিয়ে এসে নেটমাধ্যমে সেই ছবি পোস্ট করেন নায়িকা। সঙ্গে চিকুর হাসিখুশি উজ্জ্বল মুখের এক ছবি। লেখেন, ‘সব কষ্টের শেষ, এবার শান্তিতে থাক'। তবে তিনি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ আজীবন এইভাবেই চিকুকে ভালোবাসেন। চিকু তাঁর মনজুড়ে থাকবে।

নেটমাধ্যমে ঝড়ের গতিতে এই খবর চাউর হয়েছে। মিমির পোষ্য হারানোর শোক মন ছুঁয়ে গিয়েছে তাঁর অনুরাগীসহ টলিপাড়ার বন্ধুদের। সায়ন্তিকা, বনি, কৌশানী, ঋতাভরী, মধুমিতা, মিথিলা সকলেই মিমিকে সান্তনা দিয়েছেন।  পোষ্যপ্রেমী মধুমিতা সরকার লেখেন, ‘ও ঠিক তোমার কাছে  ফিরে আসবে…অন্যকোনও নামে অবশ্যই, কিন্তু তোমরা আলাদা হবে না, তোমার ভালোবাসা বৃথা যাবে না’। বনি লেখেন, ‘হে ভগবান..বিশ্বাস হচ্ছে না। মন শক্ত কর। ওঁর আত্মার শান্তি কামনা করি। এটা মন ভেঙে দেওয়ার মতো খবর’। 

চেন্নাই নিয়ে যাওয়ার পর গত ২রা মার্চ চিকুর কেমোথেরাপির প্রথম ডোজ হয়েছিল। এরপর নায়িকা ভক্তদের জানিয়েছিলেন ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন চিকু। মিমি নিজে আশাবাদী ছিলেন। বলেছিলেন, ‘আশা করছি ও দ্রুত সেরে উঠবে, আপনারা প্রার্থনা করুন’। জানা গিয়েছিল কেথোথেরাপির ২৮টি ডোজ নিতে হত চিকুকে। তবে সে সুযোগ দিল না চিকু, চিরঘুমের দেশে পারি দিল সে। 

বন্ধ করুন