বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'রেস ৩' ছবিতে ‘জঘন্য’ অভিনয় থেকে মোহিন্দর অমরনাথ, মুখ খুললেন শাকিব সালিম
'রেস ৩' ছবিতে সলমন খানের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করতে দেখা গেছিল শাকিব সালিম-কে। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

'রেস ৩' ছবিতে ‘জঘন্য’ অভিনয় থেকে মোহিন্দর অমরনাথ, মুখ খুললেন শাকিব সালিম

  • ৩ বছর পর ফের বড়পর্দায় কামব্যাক করছেন শাকিব সালিম। সৌজন্যে, '৮৩'।

শেষবার বড়পর্দায় শাকিব সালিমকে দেখা গেছিল 'রেস ৩' ছবিতে। ২০১৮ সালে মুক্তি পাওয়া এই ছবি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ার পাশাপাশি ছবির প্রধান অভিনেতাদের তাঁদের পারফর্মেন্সের সুবাদে কঠোর সমালোচনা করেছিল নেটিজেন থেকে শুরু করে ছবি সমালোচকের দল। 'রেস ৩' তে সলমন খানের পাশাপাশি শাকিব থাকার সুবাদে তিনিও দারুণ সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছিলেন। এবার ৩ বছর পর ফের বড়পর্দায় কামব্যাক করছেন শাকিব। সৌজন্যে, '৮৩'। সম্প্রতি, হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে 'রেস ৩' এর ব্যথর্তা থেকে শুরু করে '৮৩' ছবিতে মোহিন্দর অমরনাথ-এর চরিত্রে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে নানান কথা শেয়ার করলেন এই বলি-অভিনেতা।

১৯৮৩ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপের ট্রফি হাতে কপিল এবং মোহিন্দর অমরনাথ (ডান দিকে)। (ছবি সৌজন্যে - টুইটার)
১৯৮৩ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপের ট্রফি হাতে কপিল এবং মোহিন্দর অমরনাথ (ডান দিকে)। (ছবি সৌজন্যে - টুইটার)

'রেস ৩' ছবি নিয়ে সরাসরি কোনও মন্তব্য না করলেও সেই ছবিতে যে নিজের অভিনয় 'জঘন্য' লেগেছিল তাঁর, সেকথা খোলাখুলিই স্বীকার করে নিলেন শাকিব। বললেন, 'দেখুন, এই ছবিতে আমিও অভিনয় করেছিলাম। তাই সেই ছবি কেমন এক্ষেত্রে আমার ব্যাক্তিগতমতামত কী সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। তবে হ্যাঁ, এটুকু বলতে পারি এই ছবিতে নিজের অভিনয় নিয়ে এতটুকুও খুশি হইনি আমি। পরে পর্দায় এই ছবিতে নিজেকে দেখে মনে হয়েছিল খুব খারাপ অভিনয় করেছি। সমালোচনাও জুটেছিল সেরকমই। কিছু কিছু সমালোচনা আবার বেশ ব্যক্তিগত স্তরেও ছিল'।

আর '৮৩' ছবিতে মোহিন্দর অমরনাথ' সাজার অভিজ্ঞতা কেমন? সাকিবের কথায়, 'ছোট থেকেই ক্রিকেট খেলেছি। তাই একদিকে তা সুবিধের হলেও অন্যদিকে অসুবিধেরও ছিল। কারণ, আমার নিজস্ব একটি ব্যাটিং করার স্টাইল রয়েছে। এবার সেটিকে পুরোপুরি বদলে মোহিন্দর অমরনাথের মতো করে ফেলা মোটেই সহজ নয়। দিনের পর দিন অনুশীলন করে গেছি। ভীষণ,ভীষণ কঠিন ছিল। তবু প্রাণপণ চেষ্টা করেছি'। সামান্য থেমে এই বলি-অভিনেতা আরও জানালেন এই ছবির সুবাদেই মোহিন্দর অমরনাথ নিজে তাঁকে কোচিং করিয়েছেন বেশ কয়েকবার। নিজের বিষয়ে নানারকম তথ্য দিয়ে তাঁকে সমৃদ্ধ করেছেন যাতে পর্দায় পুরোপুরি 'মোহিন্দর অমরনাথ' হয়ে উঠতে পারেন শাকিব। মুক্তি পেতে চলেছে '৮৩'।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৩ সালে লর্ডসের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে সোনালি ইতিহাস গড়েছিল ভারত। ইতিহাসের পাতা থেকে ভারতের ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ের সেই কাহিনি এবার রুপোলি পর্দায় নিয়ে আসছেন পরিচালক কবীর খান। আগামী ২৪ ডিসেম্বর রুপোলি পর্দায় মুক্তি পাবে এই ছবি।

বন্ধ করুন