বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'আমার শ্রবণ আর নেই!', কান্নায় ভেঙে পড়লেন নদিম
বন্ধুকে হারিয়ে শোকস্তব্ধ নদিম
বন্ধুকে হারিয়ে শোকস্তব্ধ নদিম

'আমার শ্রবণ আর নেই!', কান্নায় ভেঙে পড়লেন নদিম

  • করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন নব্বইয়ের দশকের বলিউডের বিখ্যাত সংগীত পরিচালক জুটি 'নদিম-শ্রবণ' এর শ্রবণ রাঠোর।এবার বন্ধু শ্রবণের মৃত্যুতে কান্নায় ভেঙে পড়লেন নদিম।

বৃহস্পতিবার রাতে করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন নব্বইয়ের দশকের বলিউডে সবথেকে হিট সংগীত পরিচালক জুটি 'নদিম-শ্রবণ' এর শ্রবণ রাঠোরের। বয়স হয়েছিল ৬৭। কয়েকদিন আগেই এই বর্ষীয়ান সংগীত পরিচালককে ভর্তি করা হয়েছিল মুম্বইয়ের মাহিম অঞ্চলের এসএল রাহিজা হাসপাতালে। ক্রমশ তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ভেন্টিলেটর সাপোর্টও দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। শ্রবনের অবস্থা যে অত্যন্ত সংকটজনক তার ইঙ্গিত সম্প্রতি দিয়েয়েছিলেন এই সংগীত পরিচালকের বন্ধু বিশিষ্ট গীতিকার সমীর।শেষপর্যন্ত চিকিৎসকদের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে বৃহস্পতিবার রাত ৯:৩০ নাগাদ চলে গেলেন তিনি। হাসপাতাল সূত্রে খবর,করোনার জেরে মাল্টি অর্গ্যান ফেলিওর হয়েছিল তাঁর।

অন্যদিকে, প্রিয় বন্ধুর মৃত্যুর খবরে ভেঙে পড়েছেন নদিম। এক জাতীয়স্তরের সংবাদমাধ্যমের তরফে নদিমের সঙ্গে এই বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ফোনের ওপার থেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। আবেগভরা গলায় নদিম জানান যে, তিনি মেনে নিতেই পারছেন না তাঁর প্রিয় 'শানু' আর নেই। শ্রবণের সঙ্গেই তাঁর যেমন বড় হওয়া তেমনই জীবনের নানা চড়াই উৎরাই একসঙ্গে পেরিয়ে আসা, সেকথাও অকপটে জানালেন এই বর্ষীয়ান সংগীত পরিচালক। এখানেই না থেমে নদিম আরও বললেন একদিনের জন্যও শ্রবণের সঙ্গে তাঁর যোগাযোগ বন্ধ হয়নি। নদিমের কথায়,' অসম্ভব কষ্ট হচ্ছে।এক অসীম শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে।ভাইকে শেষবারের জন্যও দেখতে পেলাম না।' কথাশেষে তাঁর সংযোজন,'এমন পরিস্থিতি চারপাশে যে শ্রবণের পরিবারের পাশে গিয়ে এইমুহূর্তে দাঁড়াতে পারছি না। ভীষণ অসহায় লাগছে নিজেকে।' প্রসঙ্গত, শ্রবণের স্ত্রী ও ছেলে সঞ্জীব রাঠোরও করোনায় আক্রান্ত। তাঁরাও এইমুহূর্তে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। উল্লেখ্য,'পরদেশ',' রাজা হিন্দুস্তানি','সড়ক','সাজান','আশিকী’ প্রভৃতি সুপারহিট ছবির সংগীত পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন 'নদিম-শ্রবণ' জুটি।

বন্ধ করুন