বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Alcohol during pregnancy: গর্ভাবস্থায় কেন খেতে নেই অ্যালকোহল? যে কারণগুলোর জন্য নিষেধ করেন চিকিৎসক

Alcohol during pregnancy: গর্ভাবস্থায় কেন খেতে নেই অ্যালকোহল? যে কারণগুলোর জন্য নিষেধ করেন চিকিৎসক

গর্ভধারণের পর জীবনযাপনের কায়দা ও খাওয়াদাওয়াতেও বদল আনা জরুরি (Freepik)

Alcohol during pregnancy harmful effects why to avoid: গর্ভাবস্থায় অনেকরকম খাবার খাওয়াই বারণ। তার মধ্যে অন্যতম হল অ্যালকোহল। কেন অ্যালকোহল খেতে বারণ করা হয়, তার পিছনে রয়েছে বেশ কিছু কারণ।

প্রথমবার মা হওয়া সব নারীর জীবনেই এক নতুন অধ্যায়। এ জীবনের এই বিশেষ মুহূর্ত। এই সময় নতুন প্রাণের জন্ম দেওয়ার জন্য তৈরি করতে হয় নিজেকে। নিজের শরীরকে উপযুক্ত করে তুলতে হয় একরত্তির মতো করে। সে কারণেই গর্ভধারণের পর জীবনযাপনের কায়দা ও খাওয়াদাওয়াতেও বদল আনা জরুরি।

এতদিন ধরে অনিয়মিত জীবনযাপন করলেও পরিবারের নতুন অতিথিকে আনার জন্যে কিছু অভ্যাস ছাড়তে হয়। এছাড়াও তাকে ভালো রাখার জন্য বেছে নিতে হয় অন্য কিছু অভ্যাস। এর মধ্যে অন্যতম হল খাওয়াদাওয়াতে নিয়ন্ত্রণ আনা। এর পাশাপাশি যে কোনও রকম নেশা থেকে নিজেকে দূরে রাখা। অনেকেই মদ্যপানে বেশ স্বচ্ছন্দ বোধ করেন। তবে গর্ভধারণের পর মদ্যপান খাওয়ার অভ্যাসও ছাড়া জরুরি। বিশেষজ্ঞদের কথায়, গর্ভধারণের সময় মদ্যপান করলে ভ্রূণ ও মায়ের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। কীভাবে ও কেন ভ্রূণ ও মায়ের ক্ষতি করে অ্যালকোহল, চলুন জেনে নেওয়া যাক।

বিশেষজ্ঞদের কথায়, গর্ভবস্থায় অ্যালকোহল পান করলে তা জরায়ু পর্যন্ত পৌঁছে বিভিন্ন অঙ্গের ক্ষতি করে। পাশাপাশি ভ্রুণের উপরেও ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। তাই যতদিন না শিশু ভূমিষ্ঠ হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত অ্যালকোহল পান থেকে বিরত থাকা জরুরি। নতুন মা হওয়ার পরিকল্পনা করলে পরিকল্পনার সময় থেকেই এই অভ্যাস ত্যাগ করা জরুরি। অনেকে মনে করেন অল্প করে খেলে তেমন কোনও ক্ষতি হবে না। কিন্তু এই ধারণাও সম্পূর্ণ ভুল। সারাদিনে এক পেগ অ্যালকোহল পান করলেও তা আপনার শরীরের ও ভ্রূণের যথেষ্ট ক্ষতি করতে পারে। এমনকী এর জন্য ওর শারীরিক বিকাশ থেকে শুরু করে মস্তিষ্ক গঠনের গুরুত্বপূর্ণ ধাপগুলি ব্যাহত হয়।

গর্ভধারণ করার পর অ্যালকোহল পান করলে তা মায়ের অ্যাম্বিলিকাল কর্ড দিয়ে ভ্রূণ পর্যন্ত চলে যায়। এরপরেই ভ্রূণএর শরীরে প্রবেশ করে ক্ষতি ঘটায়। দেখা গিয়েছে, মদ বা অ্যালকোহল গর্ভস্থ ভ্রূণের শরীরে ঢুকে মস্তিষ্ক, স্নায়ুতন্ত্রের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। এছাড়াও ভ্রূণের চোখ, কান, নাক এবং অন্যান্য অঙ্গ নির্মাণের প্রক্রিয়ায় বাধা দেয় ও ক্ষতি করে। এর ফলে সঠিক বিকাশে নানারকম জটিলতা দেখা দেয়।বিশেষজ্ঞদের কথায়, কিছু ক্ষেত্রে প্রিম্যাচিওর শিশু প্রসবেরও আশঙ্কাও থাকে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন