বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > HIV AIDS: ভারতের এই রাজ্যে হু হু করে বাড়ছে এইডসের প্রকোপ! ভয়াবহ পরিসংখ্যান প্রকাশ্যে

HIV AIDS: ভারতের এই রাজ্যে হু হু করে বাড়ছে এইডসের প্রকোপ! ভয়াবহ পরিসংখ্যান প্রকাশ্যে

মিজারামে ভয়াবহভাবে বাড়ছে এইডস। (Representative Image) (HT_PRINT)

১৯৯০ সালে মিজোরামে প্রথম এইডস আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর থেকে শুধু এইডসেই সেখানে ৩৫০৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। মিজোরামের স্টেট এইডস কন্ট্রোল সোসাইটি জানিয়েছে সারা দেশের তুলনায় মিজোরামে ১০ গুণ বেশি হার রয়েছে এইডস আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে। মিজোরামের পরই রয়েছে নাগাল্যান্ড। সেখানে মোট জনসংখ্যার ১.৪৫ শতাংশ মানুষ এইডস আক্রান্ত।

হেনরি এল খোজোল

জাতীয় গড়ের চেয়ে ১০ গুণ বেশি এইডস আক্রান্ত রোগী রয়েছে মিজোরামে। এই পরিসংখ্যান উঠে এসেছে ন্যাশনাল এইডস কন্ট্রোল অর্গানাইজেশনের তরফে। দেশের মধ্যে এইডস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যায় সবচেয়ে আগে রয়েছে মিজোরাম। সেখানে ১০.৯১ লাখ মানুষের (২০১১ সালের আদমসুমারী অনুযায়ী)মধ্যে ২.৩০ শতাংশ মানুষই সেখানে এইচআইভির শিকার। অর্থাৎ সে রাজ্যে ২৭৩৭০ জন প্রায় এই রোগে আক্রান্ত।

১৯৯০ সালে মিজোরামে প্রথম এইডস আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর থেকে শুধু এইডসেই সেখানে ৩৫০৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। মিজোরামের স্টেট এইডস কন্ট্রোল সোসাইটি জানিয়েছে সারা দেশের তুলনায় মিজোরামে ১০ গুণ বেশি হার রয়েছে এইডস আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে। মিজোরামের পরই রয়েছে নাগাল্যান্ড। সেখানে মোট জনসংখ্যার ১.৪৫ শতাংশ মানুষ এইডস আক্রান্ত। ঘটনা নিয়ে প্রশাসনিক স্তরে সতর্কতার বার্তা দিয়েছেন মিডোরামের স্টেট এইডস কন্ট্রোল সোসাইটির কর্তা ডঃ লালথাংলিয়ানা। পড়ুন অন্যরকমের খবর-লঙ্কার আচারে সেই ঝাঁঝ আসছে না? কোন মশলা দিতে হবে! এই সিক্রেট টিপস কাজে দেবে

পরিসংখ্যান বলছে, সেরাজ্যে এইডসে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি রয়েছে যুব সমাজের মধ্যে। ২৫ থেকে ৩৪ বছর বয়সিদের শরীরে এইডসের হানা বেশি মিজোরামে। দেখা গিয়েছে মোট জনসংখ্যার প্রায় ৪২.১২ শতাংশ যুব সমাজে এই এইডস দানবীয়ভাবে হানা দিচ্ছে। সেরাজ্যে ৩৫ থেকে ৪৯ বছরের মধ্যের তরুণদের ২৭ শতাংশ এইডসে আক্রান্ত। দেখা যাচ্ছে সেরাজ্যে ৬৫ শতাংশ এইডসের ঘটনা সঙ্গম থেকে ছড়াচ্ছে। বাকি ৩১ শতাংশ ইন্টারভেনাস ড্রাগ থেকে ছড়াচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে।

বন্ধ করুন