বাড়ি > ঘরে বাইরে > মদ না পেয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সেবন, অন্ধ্রে মৃত নয়
প্রতীকী ছবি  (AP)
প্রতীকী ছবি  (AP)

মদ না পেয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সেবন, অন্ধ্রে মৃত নয়

  • বাকিরা হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। 

মদ জুটছে না, তাহলে হ্যান্ড স্যানিটাইজার পান করে দেখি। এই করতে গিয়ে বেঘোরে প্রাণ হারালেন কমপক্ষে নয় জন।  অন্ধ্রপ্রদেশের প্রকাশম জেলায় গত দুই দিনে মারা গিয়েছেন এই ব্যক্তিরা। 

পুলিশ জানিয়েছে কুরিচেদু শহরে এই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা হয়েছে। বুধবার রাতে একজন মারা যান। এরপর গতকাল আরও দুই জন ও শুক্রবার সকালেই ছয় জনের মৃত্যু হয়েছে।এর মধ্যে তিনজন ভিখারী ও বাকি ছয়জন বস্তিবাসী বলে জানা গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত কুড়িজনকে শনাক্ত করা হয়েছে যারা মদের জায়গায় স্যানিটাইজার পান করেছিলেন। ২৫ থেকে ৬৫ বছরের মধ্যে বয়সী এই নয় পুরুষের। 

প্রকাশম জেলার পুলিশ সুপার সিদ্ধার্থ কৌশল জানান যে জেলায় লকডাউন চলছে বলে মদ পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে বিকল্প  হিসাবে স্যানিটাইজার সেবন করেন তাঁরা। বুধবার রাতে একজন ভিক্ষুক এই স্যানিটাইজার সেবন করার পরেই বলেন যে পেট পুরো জ্বলে যাচ্ছে। তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে সে মারা যায়। 

বৃহস্পতিবার সকালে আরও দুইজন এরকমই পেটের ব্যাথা নিয়ে সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। কিন্তু রাতে তারা মারা যান। একই অভিযোগ নিয়ে ভর্তি হওয়া আরও ছয়জন শুক্রবার প্রাণ হারিয়েছেন। 

স্থানীয় দোকান থেকে স্যানিটাইজার আটক করে সেগুলির পরীক্ষা করা হচ্ছে। পুলিশ এটাও তদন্ত করছে যে শুধু স্যানিটাইজার সেবন করেছিলেন এই সব ব্যাক্তি নাকি চোলাইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে পান করা হয়েছিল। গত দশ দিন ধরে লকডাউন চলছে অঞ্চলে। সব মদের দোকান বন্ধ। 

মৃত ব্যক্তির পরিবারবর্গ বলেছেন যে স্যানিটাইজার সেবন করার কিছু পরেই জ্ঞান হারান তাঁরা। কতটা করে স্যানিটাইজার সেবন করা হয়েছিল, তা অবশ্য জানা যায়নি। অ্যালকোহল বেসড হ্যান্ড স্যানিটাইজারেই জব্দ হয় করোনা। কিন্তু এটা যে পান করা যাবে না, সেটা বারবার সতর্ক করেছে চিকিৎসকরা। তবুও অজ্ঞানতার বশে বেঘোরে প্রাণ হারালেন নয় জন। 

বন্ধ করুন