বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ইউক্রেনে হামলার জের, রাশিয়ার ভেটো কেড়ে নেবার ডাক
আন্তর্জাতিক আঙিনায় রাশিয়ার চরম শাস্তির দাবি করেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট। ডয়চে ভেলে

ইউক্রেনে হামলার জের, রাশিয়ার ভেটো কেড়ে নেবার ডাক

  • ভেটো থাকা সত্ত্বেও রাষ্ট্রসংঘে সুবিধা করে উঠতে পারছে না রাশিয়া৷ আন্তর্জাতিক আঙিনায় সে দেশের উপর চাপ আরও বাড়ছে৷ ফ্রান্সের উদ্যোগে নিরাপত্তা পরিষদ এক বিশেষ অধিবেশনে বিদেশমন্ত্রীদের এক বৈঠকের আয়োজন করছে৷

ইউক্রেনের উপর চলমান হামলার কারণে আন্তর্জাতিক মঞ্চে আরও কোণঠাসা হচ্ছে রাশিয়া৷ জাতিসংঘে সে রাশিয়ার শাস্তি ও সে দেশ থেকে ক্ষতিপূরণ আদায়ের ডাক দিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট৷ স্বীকৃত পরমাণু শক্তিধর দেশের একটি হিসেবে রাশিয়া রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য হলেও সাধারণ পরিষদের চলমান অধিবেশনে সে দেশ বেশ কোণঠাসা হয়ে পড়ছে৷ এমনকি এতকাল যে সব দেশ নীরব অথবা ভোটদানে বিরত থেকে ইউক্রেনের উপর রাশিয়ার হামলার সরাসরি সমালোচনা এড়িয়ে গিয়েছে, সে সব দেশও মস্কোর প্রতি কিছুটা শীতল আচরণ করতে শুরু করছে৷ ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির রেকর্ড করা ভাষণের পর রাশিয়ার প্রতি এমন বৈরি মনোভাব আরও বাড়ার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে৷

শুধু রাশিয়ার হামলার নিন্দা নয়, এমন পদক্ষেপের জন্য সে দেশকে চরম শাস্তি দেবার আহ্বান জানিয়েছেন জেলেনস্কি৷ এমন আগ্রাসন চালালে তার মূল্য কী হতে পারে, সম্ভাব্য ভবিষ্যৎ আগ্রাসীদের জন্য সেই বার্তা দেওয়া জরুরি বলে তিনি মনে করেন৷ জেলেনস্কি জমি বেদখল, হাজার হাজার নিরিহ মানুষের হত্যা, পুরুষ ও নারীর উপর নিপীড়ন ও তাদের অপমানের মতো অপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক আঙিনায় রাশিয়ার চরম শাস্তির দাবি করেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট৷ তিনি রাশিয়ার অপরাধ নথিভুক্ত করার জন্য বিশেষ আন্তর্জাতিক ট্রাইবুনাল গঠন ও সে দেশের বিষয়সম্পত্তি কাজে লাগিয়ে এক ক্ষতিপূরণ তহবিল গঠনেরও ডাক দেন৷ জেলেনস্কি নিরাপত্তা পরিষদে রাশিয়ার ভেটো কেড়ে নেবারও দাবি জানিয়েছেন৷

ভেটো থাকা সত্ত্বেও রাষ্ট্রসংঘে সুবিধা করে উঠতে পারছে না রাশিয়া৷ আন্তর্জাতিক আঙিনায় সে দেশের উপর চাপ আরও বাড়ছে৷ ফ্রান্সের উদ্যোগে নিরাপত্তা পরিষদ এক বিশেষ অধিবেশনে বিদেশমন্ত্রীদের এক বৈঠকের আয়োজন করছে৷ সেখানে রুশ বিদেশমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ ও মার্কিন বিদেশমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেনও উপস্থিত থাকবেন৷ উল্লেখ্য, ফেব্রুয়ারি মাসে ইউক্রেনের উপর রাশিয়ার হামলা শুরু হবার পর থেকে ব্লিংকেন আলাদা করে লাভরভের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে অস্বীকার করে এসেছেন৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিদেশমন্ত্রীরাও বুধবার নিউ ইয়র্কে মিলিত হয়ে রাশিয়ার উপর নতুন নিষেধাজ্ঞা চাপানোর বিষয়ে আলোচনা করেছেন৷

এতকাল উন্নয়নশীল বিশ্বের যে সব দেশ সরাসরি রাশিয়ার আচরণের নিন্দা করতে দ্বিধা বোধ করেছে, সে সব দেশের প্রতিও সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে মার্কিন প্রশাসন৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বিশ্বব্যাপী খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আরও ২৯০ কোটি ডলার সহায়তার ঘোষণা করেন৷ ইউক্রেনের উপর রাশিয়ার হামলা ও মস্কোর উপর নিষেধাজ্ঞার জের ধরে খাদ্যপণ্য সরবরাহে যে বিঘ্ন ঘটছে, সেই ধাক্কা সামলাতে এই পদক্ষেপ কিছুটা সহায়ক হবে বলে তিনি মনে করছেন৷ জেলেনস্কির মতো বাইডেনও নিরাপত্তা পরিষদে আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকা থেকে স্থায়ী সদস্যপদের পক্ষে সওয়াল করেন৷ বাইডেন বর্তমান পরিস্থিতিতে চীনের সঙ্গে সংঘাত এড়িয়ে আরও সহযোগিতার পথে যাবার অঙ্গীকার করেন৷ চিন সম্প্রতি রাশিয়ার বিরুদ্ধে কিছুটা কড়া অবস্থান নেওয়ায় ওয়াশিংটন উৎসাহিত হচ্ছে৷ এমনকি উত্তর কোরিয়াও রাশিয়াকে অস্ত্র সরবরাহের অভিযোগ অস্বীকার করেছে এবং ভবিষ্যতেও করবে না বলে জানিয়েছে৷

বন্ধ করুন