বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > উঠল ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান, ধর্মান্তরের অভিযোগে এবার বড়দিন পালনে বাধা হরিয়ানায়
ধর্মান্তরের অভিযোগে এবার বড়দিন পালনে বাধা হরিয়ানায় (প্রতীকী ছবি: পিটিআই) (PTI)

উঠল ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান, ধর্মান্তরের অভিযোগে এবার বড়দিন পালনে বাধা হরিয়ানায়

  • সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনার ভিডিয়ো ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, কিছু মানুষ ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান তুলে এক মহিলার থেকে মাইক ছিনিয়ে নিচ্ছে।

হরিয়ানার গুরুগ্রামে বিগত বেশ কয়েক মাস ধরেই উন্মুক্ত স্থানে নমাজ আদায় নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছে। কখনও নমাজ আদায়কারীদের বাধা দেওয়া হচ্ছে, আবার কখনও হিয়ে নমাজের স্থানে ‘গোবর্ধন পুজো’ করা হচ্ছে। এই আবহে এবার গুরুগ্রাম জেলারই পটৌদিতে বড়দিন পালনে বাধা দিল একটি হিন্দু গোষ্ঠী। একটি প্রাইমারি স্কুলে বড়দিনের অনুষ্ঠানে বাধা দিয়ে ধর্মান্তরের অভিযোগ তোলা হয় ডানপন্থী সংগঠনটির তরফে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনার ভিডিয়ো ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, কিছু মানুষ ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান তুলে একটি অনুষ্ঠানস্থলে ঢোকে। সেখানে এক মহিলার থেকে মাইক ছিনিয়ে নেওয়া হয়। সেই মহিলা এক ভক্তিমূলক গান গাইছিলেন। এদিকে ঘটনার প্রেক্ষিতে পুলিশ কোনও গ্রেফতারি করেনি। পুলিশের দাবি, তাদের কাছে এই সংক্রান্ত কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

জানা গিয়েছে, ‘দ্য হাউজ অফ হোপ’ নামক একটি সমাজ সংগঠন পটৌদিতে একটি প্রাইমারি স্কুলে ‘ক্রিসমাস মিলন’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। গান, নাচ, বাইবেলের বাণীর মাধ্যমে বড়দিন পালনের লক্ষ্যে এই অনুষ্ঠান আয়োজিত করা হয়েছিল। এর প্রেক্ষিতে ‘ধর্মজাগৃতি মিশনের সভাপতি আরপি পাণ্ডে দাবি করেন, ‘দুই দিন আগে কিছু মহিলা বাসিন্দাদের কাছে এসে তাদের বড়দিনের অনুষ্ঠানের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। গান এবং প্রার্থনার মাধ্যমে তারা তাদের ধর্ম প্রচার করছে এবং শিশুদের মনকে সনাতন ধর্ম সম্পর্কে কলুষিত করছে।’ আরপি পাণ্ডের আরও অভিযোগ, দরিদ্র শ্রেণীর মানুষদের লোভ দেখিয়ে ধর্মান্তরিত করতেই এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। এদিকে ঘটনার প্রেক্ষিতে আয়োজকরা পুলিশে কোনও অভিযোগ জানাতে চান না বলে জানিয়েছেন। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট স্কুলের নাম প্রকাশ না করার আর্জি জানিয়েছেন।

বন্ধ করুন