বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Dowry deaths: পণের জন্য মৃত্যু শুধু পুরুষ অধিপত্যের বিষয় নয়, নারীদেরও ভূমিকা রয়েছে : দিল্লি হাইকোর্ট

Dowry deaths: পণের জন্য মৃত্যু শুধু পুরুষ অধিপত্যের বিষয় নয়, নারীদেরও ভূমিকা রয়েছে : দিল্লি হাইকোর্ট

দিল্লি হাইকোর্ট

পর্যবেক্ষণে আদালত বলে,'এ ধরনের ঘটনার ক্ষেত্রে যেটা অস্বস্তিকর তা হল, বিষয়টি শুধুমাত্র পুরুষ অধিপত্যবাদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে না।

পণের জন্য খুন প্রমাণ করে, সমাজে এখনও মেয়েদের আর্থিক বোঝা হিসাবে মনে করা হয়। এই ধরনের মৃত্যু মনে করিয়ে দেয়, সমাজে মানসিকতার এখনও বদল হয়নি। এক মামলার পর্যবেক্ষণে এই মন্তব্য করল দিল্লি হাই কোর্ট।

মামলায় বিচারপতি স্বরানা কান্ত শর্মা বলেন, আরও অস্বস্তিকর বিষয় হল, পণের জন্য খুন শুধুমাত্র পুরুষের অধিপত্যের কারণে হয় না বরং নারীরাও তাদের প্রতিপক্ষের প্রতি শত্রুতা দেখাতে গিয়ে এতে মদত দেন।

পর্যবেক্ষণে আদালত বলে,'এ ধরনের ঘটনার ক্ষেত্রে যেটা অস্বস্তিকর তা হল, বিষয়টি শুধুমাত্র পুরুষ অধিপত্যবাদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে না। এই সব ঘটনায় একটি জটিল মোড় থাকে। যেখানে মহিলারা তার প্রতিপক্ষকে সরিয়ে দিতে এই ধরনের কাজে অংশ নেয়। পণের দাবিতে খুনের মামলাগুলি প্রমাণ করে, মেয়েদের আসলে আর্থিক বোঝা হিসাবে দেখা হয়। জন্ম সময় থেকেই তাঁর বিবাহের খরচের বিষয়ে ভাবনা-চিন্তা শুরু হয়। সেই ভাবনা, তাদের শিক্ষা এবং স্বর্নিভর হওয়ার আকাঙ্ক্ষাকে ছাপিয়ে যায়।'

আদালতের আরও পর্যবেক্ষণ, শ্বশুর বাড়িতে মহিলার কাছে বারবার পণের টাকা আনার জন্য চাপ দেওয়া তাঁর উপর মানসিক চাপ তৈরি করে। পণের জন্য তাঁকে ক্রীতদাসের মতো জীবনযাপন করতে বাধ্য করা শারীরিক নির্যাতনের চেয়েও ক্ষতিকর হতে পারে।

আদালতের আরও পর্যবেক্ষণ, 'এই ধরণের মৃত্যুর ক্ষেত্রে মেয়েটির পরিবারের লোকজনের থেকে জানতে পারা যায়, কী ধরনের মানসিক অত্যাচার করা হয়ে থাকে মেয়েটিকে বাড়ি থেকে টাকা আনতে বাধ্য করার জন্য। বিয়ে হয়ে যাওয়া সত্ত্বেও বাপের বাড়ি থেকে মূল্যবান সামগ্রী, টাকা আনতে বলা হয়। এমন ভাবে বিষয়টি রাখা হয়, ছেলেটির পরিবারের এটা অধিকার এবং মেয়েটির বাবা-মা তা পালন করতে বাধ্য।'

আদালত আরও বলে, মানসিক অত্যাচার এমন পর্যায়ে চলে যায় যে মেয়েটির তখন মৃত্যুকে কম যন্ত্রণাদায়ক বলে মনে হয়।

২০০০ সালে স্ত্রীকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দেওয়া এবং পণ নেওয়ার অভিযোগ দোষী সাব্যস্ত হন সতপাল সিং। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে দিল্লি হাই কোর্টে যান তিনি। সেই মামলাতেই আদালত তার পর্যবেক্ষণ জানিয়েছে। নিম্ন আদালত তাঁকে ২০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছিল।

এই মামলায় বিচারপতি শর্মা বলেন, মহিলাকে নিরলস যন্ত্রণা সহ্য করতে হয়েছিল এমন কী তাঁর বাবা-মা সঙ্গে তাঁকে দেখা করারও অনুমতি দেওয়া হয়নি। হাইকোর্ট নিম্ন আদালতের রায়কেই বহাল রেখেছে।

 

ঘরে বাইরে খবর

Latest News

শাহরুখের ফ্যান ছবির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের দর্শকের, অবশেষে YRF-র পক্ষেই এল রায় RCB-কে হারিয়ে ঘরের মাঠে জয়ের হাফসেঞ্চুরি KKR-এর, স্পর্শ করল MI-এর অনন্য নজির অভিষেকের বাড়ি–অফিস রেইকি করে মুম্বই হামলার জঙ্গি, গ্রেফতার করল লালবাজার ২৫% প্ল্যাটফর্ম ফি বৃদ্ধি জোমাটোর, এবার অনলাইনে খাবার অর্ডারে খসবে কত বেশি? আগামিকাল হনুমান জয়ন্তীতে ভুল করেও কিনবেন না এই জিনিস, নচেৎ বজরংবলী হবেন ক্রুদ্ধ অপুষ্টিজনিত কারণে শিশুর মৃত্যু, রাজনৈতিক তরজা শুরু হতেই তদন্তের নির্দেশ ৬ মাসের আগেই এল SSC মামলার রায়, জানেন ঠিক কি নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট? পুরনো রেসিপিতেই সুস্বাদু বিরিয়ানি KKR-র, চেনা মশলায় আস্থা রেখে সাফল্য প্রথমার্ধে আতিফকে জড়িয়ে 'ভালোবাসি' বলে চিৎকার ভক্তের, কীভাবে সামাল দিলেন পাক-গায়ক? জিনসের প্যান্ট বেশির ভাগ সময় নীলই হয় কেন? পরার আগে জেনে নিন

Latest IPL News

পুরনো রেসিপিতেই সুস্বাদু বিরিয়ানি KKR-র, চেনা মশলায় আস্থা রেখে সাফল্য প্রথমার্ধে কেন রোহিতকে সরিয়ে হার্দিককে নেতা করল MI? শেষ ৩ বছরের খতিয়ান দিয়ে বোঝালেন উথাপ্পা ২০-২৫ দিন পরে দলে ফিরেই কী করে ম্যাচের সেরা হলেন? কৃতিত্ব কাকে দিলেন সাই কিশোর ম্যাচের পরেও আম্পায়াদের সঙ্গে গুজগুজ কোহলির, দ্বিতীয় ব্যাটের আশায় পাশে রিঙ্কু? যে সব দল পার্টি করে, তারা এখনও IPL জিততে পারেনি- কাদের দিকে আঙুল তুললেন রায়না কীভাবে ইডেনের মন জিতলেন সল্ট, ফিরে দেখুন শেষ বলে অনবদ্য রান আউটের ঝলক IPL 2024: বাহবা দিচ্ছে দুনিয়া, তবুও খুশি হবেন না গুরু যুবরাজ, ভয় অভিষেকের যাদের মাথার উপর ছাদ নেই, লড়াই করেন তাঁরা, আমরা খুব ভালো আছি,হঠাৎ দার্শনিক কোহলি করণকে তুচ্ছ মনে করে সিঙ্গল নিতে রাজি হননি কার্তিক,১ রানে হারের পর প্রশ্নে রণনীতি ইডেনে হেরে উঠেই শাস্তির মুখে RCB ক্যাপ্টেন, বিরাট জরিমানা পঞ্জাব দলনায়ক কারানের

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.