বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'ফাঁস আন্ডারওয়ার্ল্ড লিঙ্ক'; দাউদের বোনের সাথে যোগ নবাবের, দাবি ফড়নবীশের
দেবেন্দ্র ফড়নবীশ (ছবি সৌজন্যে এএআই) (Deepak Salvi)
দেবেন্দ্র ফড়নবীশ (ছবি সৌজন্যে এএআই) (Deepak Salvi)

'ফাঁস আন্ডারওয়ার্ল্ড লিঙ্ক'; দাউদের বোনের সাথে যোগ নবাবের, দাবি ফড়নবীশের

  • দেবেন্দ্র ফড়নবীশের দাবি, নবাব মালিকের পরিবার আন্ডারওয়ার্ল্ডের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের সাথে লেনদেন করেছিল।

দীপাবলির পরে মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী তথা এনসিপি নেতা নবাব মালিকের 'আন্ডারওয়ার্ল্ড লিঙ্ক' ফাঁস করার ঘোষণা করেছিলেন বিজেপি নেতা তথা মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশ। সেই হুঁশিয়ারি মতো এবার অভিযোগ করলেন মুম্বই বিস্ফোরণের সঙ্গে নবাবের যোগ রয়েছে। পাশাপাশি ফড়নবীশের দাবি, আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের বোন হাসিনা পারকরের 'ফ্রন্টম্যান'-এর সাথেও যোগ রয়েছে নবাব মালিকের।

মঙ্গলবার ফড়নবীস দাবি করেন যে মালিক এবং তার পরিবার কুরলায় একটি ৩ একর জমি কিনেছিলেন। ১৯৯৩ সালের মুম্বই বিস্ফোরণে দোষী সর্দার শাহ ওয়ালি খান এবং ২০০৫ সালে পারকরের ফ্রন্টম্যান মোহাম্মদ সেলিম প্যাটেলের কাছ থেকে সেই জমি কেনেন নবাব। তিনি আরও দাবি করেন যে মালিক পরিবার দোষীদের কাছ থেকে তৎকালীন বাজারের দরের চেয়ে অনেক কম দামে সেই জমি কিনেছিল।

মঙ্গলবার ফড়নবীস দাবি করেন যে মালিক এবং তার পরিবার কুরলায় একটি ৩ একর জমি কিনেছিলেন। ১৯৯৩ সালের মুম্বই বিস্ফোরণে দোষী সর্দার শাহ ওয়ালি খান এবং ২০০৫ সালে পারকরের ফ্রন্টম্যান মোহাম্মদ সেলিম প্যাটেলের কাছ থেকে সেই জমি কেনেন নবাব। তিনি আরও দাবি করেন যে মালিক পরিবার দোষীদের কাছ থেকে তৎকালীন বাজারের দরের চেয়ে অনেক কম দামে সেই জমি কিনেছিল।

|#+|

বিজেপি নেতা অভিযোগ করেন যে সলিডাস ইনভেস্টমেন্ট প্রাইভেট লিমিটেডের মাধ্যমে মালিক এবং তাঁর পরিবার আন্ডারওয়ার্ল্ডের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের সাথে লেনদেন করেছিল। তিনি বলেন যে চুক্তিগুলি ২০০৫ এবং ২০১৯-এর মধ্যে ছিল। ফড়নবীশ বলেন যে দাউদ দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়ার পরে, হাসিনা পারকরের মাধ্যমে এই জমি দখল করা হয়েছিল। পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি ছিল সেলিম প্যাটেলের নামে।

ফড়নবীশ বলেন, '২০০৫ সালের দর অনুযায়ী সেই এলাকায় প্রতি বর্গ ফুট এলাকার দাম ছিল ২০৫৩ টাকা। তবে সেই সময় ৩ একর প্লটটি মাত্র ২৫ টাকা প্রতি বর্গফুট হারে ৩০ লক্ষ টাকায় কেনা হয়েছিল। টাকাটা জমির মালিককে নয় বরং পাওয়ার অফ অ্যাটর্নিকে দেওয়া হয়েছিল। পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি সেলিম প্যাটেল ছিল।' ফড়নবীশ দাবি করেন যে তিনি এই লেনদেন সংক্রান্ত নথি এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ারের হাতেও তুলে দেবেন।

বন্ধ করুন