বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ছেলের পর্নোগ্রাফি সংগ্রহ ফেলে দেওয়ার খেসারত, ৩০ হাজার ডলার জরিমানা অভিভাবকের
ছবিটি প্রতীকী 
ছবিটি প্রতীকী 

ছেলের পর্নোগ্রাফি সংগ্রহ ফেলে দেওয়ার খেসারত, ৩০ হাজার ডলার জরিমানা অভিভাবকের

  • ছেলের পর্নোগ্রাফি সংগ্রহ ফেলে দিয়েছিলেন মা-বাবা। এই কাজে খাপ্পা হয়ে আদালতে মামলা করেন ছেলে।

ছেলের পর্নোগ্রাফি সংগ্রহ ফেলে দিয়েছিলেন মা-বাবা। এই কাজে খাপ্পা হয়ে আদালতে মামলা করেন ছেলে। আর সেই মামলায় জিত এবার জরিমানা স্বরূপ ৩০ হাজার ৪৪১ ডলার পেতে চলেছে মামলাকারী ডেভিড রেকিং। সেই টাকা দিতে হবে মামলাকারীর অভিভাবককে। এমনই নির্দেশ দিলেন আমেরিকার মিশিগানের এক আদালতের বিচারক।

এই মামলায় যে ডেভিড রেকিং জিতেছেন, তা স্থির হয়েছিল আট মাস আগেই। মামলার শুনানি শেষের আট মাস পর মিশিগানের আদালতের বিচারক পল ম্যালোনি ডেভিডের মা-বাবাকে নির্দেশ দিলেন যাতে ছেলেকে তারা ৩০ হাজার ৪৪১ ডলার দেন।

উল্লেখ্য, মামলাকারী ডেভিডের দাবি ছিল যে তাঁর সংগ্রহে পর্নোগ্রাফি ফিল্ম, ম্যাগাজিন, পোস্টার সহ বিভিন্ন সামগ্রী ছিল। তার মোট মূল্য ২৯ হাজার ডলার বলে জাবি করেন ডেভিড। পরে আদালতের নির্দেশে ফেলে দেওয়া জিনিসের তালিকা তৈরি করে একজন বিশেষজ্ঞের দ্বারা সেগুলির বর্তমান বাজারমূল্য নির্ধআর করানো হয়। এরপরই এই জরিমানা ধার্য করেন বিচারক। পাশাপাশি ডেভিডের আইনজীবীকেও ১৪ হাজার ৫০০ ডলার দেওয়ার নির্দেশ দেন বিচারক।

মামলাকারী ৪৩ বছর বয়সী ডেভিডের ডিভোর্স হয় গতবছর। পরে তিনি তাঁর মা-বাবার সঙ্গে থাকেন কিছুদিন। পরে ইন্ডিয়ানাতে শিফ্ট করার পর নিজের জিনিস ঘেঁটে দেখতে গিয়ে বোঝেন যে তাঁর পর্নোগ্রাফি সংগ্রহের বস্তুগুলি সেখানে নেই। পরে তাঁর বাবা তাঁকে ই-মেল করে লেখেন যে তিনি সেগুলি ফেলে দিয়েছেন। এরপরই এই ঘটনার প্রেক্ষিতে মামলা করেন ডেভিড।

 

বন্ধ করুন