বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'সন্ধ্যা ৬ টার ছাত্রীরা একা বের হবে না,' গণধর্ষণের ঘটনার পর নির্দেশ মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয়ের
'সন্ধ্যা ৬ টার ছাত্রীরা একা বের হবে না,' গণধর্ষণের ঘটনার পর নির্দেশ MU-র। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
'সন্ধ্যা ৬ টার ছাত্রীরা একা বের হবে না,' গণধর্ষণের ঘটনার পর নির্দেশ MU-র। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

'সন্ধ্যা ৬ টার ছাত্রীরা একা বের হবে না,' গণধর্ষণের ঘটনার পর নির্দেশ মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয়ের

ঘটনার প্রতিক্রিয়া হিসাবে পড়ুয়াদের উদ্দেশে একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করে মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয়।

এক ছাত্রীর উপর অমানবিক অত্যাচার হয়েছিল। তারপরই বিতর্কিত নির্দেশিকা জারি করল মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 'সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার পর ছাত্রীরা একা বের হবে না,' টাঙানো হল নোটিশ।

ঘটনা মাইসোরের। গত ১৭ অগস্ট সন্ধ্যায় চামুন্ডি হিলসের কাছে এক ছাত্রীকে যৌন নিগ্রহ করে ৬ জন। তার সঙ্গে থাকা বন্ধুকেও মারধর করা হয়। সংকটজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি করা হয় ২৩ বছরের ছাত্রীকে। তাঁর অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল।

ঘটনার প্রতিক্রিয়া হিসাবে পড়ুয়াদের উদ্দেশে একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করে মাইসোর বিশ্ববিদ্যালয়। আর তারই একটি অংশে লেখা হয়, 'সন্ধ্যা সাড়ে ছটার পর ছাত্রীদের একা একা ক্যাম্পাসে বসে থাকা বা ঘোরাফেরা করা যাবে না।' এই নিয়েই শুরু হয় বিতর্ক। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই প্রশ্ন তোলেন, 'পুলিশি নজরদারি, নিরাপত্তা রক্ষী নিয়োগ, সিসিটিভি ক্যামেরার বদলে মেয়েদের উদ্দেশ্যে নির্দেশিকা কেন দেওয়া হল?'

অনেকে পাল্টা যুক্তিও দেন। তাঁরা বলেন, পুলিশি নজরদারি, সুষ্ঠ পরিবেশ যখন নেই-ই, তখন এমনটা করা ছাড়া উপায় নেই। ছাত্রীদের নিরাপত্তার স্বার্থেই এমনটা করা হয়েছে।

ক্যাম্পাসে নিরাপত্তার অভাবের কথা স্বীকার করেছেন পুলিশকর্মীরাও। এখনও পর্যন্ত ঘটনায় ৬ অভিযুক্তের মধ্যে ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১ জন পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। ধৃত ৫ জনের মধ্যে একজন নাবালক।

বন্ধ করুন