বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পুজোর আগে সোনা আরও সস্তা, শুক্রবার ফের নিম্নমুখী বাজার
পুজোর আগে সোনার দাম লাগাতার কমায় খুশির ছোঁয়া গৃহস্থের মনে।
পুজোর আগে সোনার দাম লাগাতার কমায় খুশির ছোঁয়া গৃহস্থের মনে।

পুজোর আগে সোনা আরও সস্তা, শুক্রবার ফের নিম্নমুখী বাজার

  • প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম দাঁড়িয়েছে ৪৯,৭৭১ টাকা। প্রতি কেজি রুপোর দাম যাচ্ছে ৫৯,৩২৯ টাকা।

গত তিন দিনের ট্রেন্ড বজায় রেখে শুক্রবার ভারতীয় বাজারে আরও সস্তা হল সোনা। বিনিয়োগকারীদের কপালে ভাঁজ পড়লেও পুজোর আগে সোনার দাম কমায় খুশির ছোঁয়া গৃহস্থের মনে।

এ দিন এমসিএক্স সূচকে ০.২৭% পতনের ফলে প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম দাঁড়িয়েছে ৪৯,৭৭১ টাকা। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সূচকে ০.৫% পতনের জেরে প্রতি কেজি রুপোর দাম যাচ্ছে ৫৯,৩২৯ টাকা। 

গত অধিবেশনে সোনার দাম সূচকে ০.৬৪% অর্থাৎ প্রতি ১০ গ্রামে ৩০০ টাকা বেড়েছিল। আর সূচকে ১.৮% বৃদ্ধির জেরে প্রতি কেজি রুপোর দাম বেড়েছিল ১,০৬০ টাকা। 

মোটের উপরে চলতি সপ্তাহে বেশ খানিকটা কমেছে সোনা ও রুপোর দাম। সারা সপ্তাহের হিসেব অনুযায়ী, সোনার দাম পড়েছে প্রতি ১০ গ্রামে প্রায় ২,০০০ টাকা এবং রুপোর দাম কমেছে প্রতি কেজিতে ৯,০০০ টাকা। 

আন্তর্জাতিক বাজারে ডলারের দাম চড়ার কারণে সোনার বাজার নিম্নমুখী রয়েছে, তবে ক্ষতি সামলে দিয়েছে সম্ভাব্য মার্কিন অর্থনৈতিক সংস্কারের আশা। 

শুক্রবার স্পট গোল্ড সূচকে ০.২% পতনের জেরে প্রতি আউন্স সোনার দাম যাচ্ছে ১,৮৬৪.৪৭ ডলার। চলতি সপ্তাহের হিসেবে দাম পড়েছে ৪%। অন্য দিকে, সূচকে ১.১% পতনের ফলে রুপোর দাম প্রতি আউন্স যাচ্ছে ২২.৯৫ ডলার।  

আন্তর্জাতিক বাজার এখনও চাঙ্গা না হলেও ডলারের মূল্যবৃদ্ধির ফলে নিরাপদ সম্পদ হিসেবে গণ্য সোনায় বিনিয়োগের হার কমেছে, বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে বিশ্বজুড়ে কোভিড প্রকোপের দাপট থাকা সত্ত্বেও একাধিক দেশে নিযেধাজ্ঞা শিথিল হওয়ায় বাজার চাঙ্গা হওয়ার আশা করছেন লগ্নিকারীরা। 

তবে এই সমস্ত কিছুর জেরে চাহিদা হ্রাস পাওয়ায় সোনার ইটিএফ বিনিয়োগে টান পড়েছে, বলছন বিশেষজ্ঞরা। কোটাক সিকিওরিটিজ-এর তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বর্তমান ট্রেন্ড মেনে বিবিধ চাপের মুখে সোনার দামে আপাতত বিশেষ বৃদ্ধির আশা কম। 

বন্ধ করুন