বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দু'দিন পতনের পর বুধবার দাম বাড়ল সোনার, উত্থান রুপোরও
দু'দিন উত্থানের পর বুধবার দাম বাড়ল সোনার, উত্থান রুপোরও। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স
দু'দিন উত্থানের পর বুধবার দাম বাড়ল সোনার, উত্থান রুপোরও। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স

দু'দিন পতনের পর বুধবার দাম বাড়ল সোনার, উত্থান রুপোরও

  • বিশ্ব বাজারেও বেড়েছে সোনার দাম।

টানা দু'দিন পতনের পর বুধবার ভারতীয় বাজারে উর্ধ্বমুখী হল সোনা। একইসঙ্গে দর বাড়ল রুপোর। এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম গোল্ড ফিউচার্সের দাম ০.৪ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৪,৮৩৫ টাকা। আর রুপোর দর ০.৩৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ৬৫,১৯০ টাকা।

ক্যাপিটালভায়া গ্লোবাল রিসার্চ লিমিটেডর তরফে জানানো হয়েছে, এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪৪,৭০০-৪৪,৬০০ টাকার স্তরে সহায়তা পাচ্ছে। আর বাধা পাচ্ছে ৪৫,০০০-৪৫,১০০ টাকায়। চলতি মাসের শুরুতে প্রায় এক বছরের সর্বনিম্ন স্তরে পড়ে যাওয়ার পর গত দু'সপ্তাহ ধরে হলুদ ধাতুর দাম মোটামুটি একটি নির্দিষ্ট স্তরে থাকছে। গত বছর অগস্টে ১০ গ্রাম সোনার দাম রেকর্ড ৫৬,২০০ টাকায় পৌঁছে গিয়েছিল।

শক্তিশালী ডলার সত্ত্বেও বিশ্ব বাজারে কমেছে সোনার দাম। এক আউন্সের স্পট গোল্ডের দাম ০.৩ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ১,৭৩১.৭৫ আউন্স। বিশেষজ্ঞদের মতে, বিশ্বের কয়েকটি প্রান্তে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের গ্রাফ আবারও উর্ধ্বমুখী হওয়ায় সোনার চাহিদা আবার বেড়েছে। অন্যান্য মূল্যবান ধাতুর মধ্যে রুপোর দামও বেড়েছে। এক আউন্স রুপোর দাম ০.৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫.১৮ শতাংশ। তবে হিরের দাম অটল আছে। কোটাক সিকিউরিটিজের তরফে জানানো হয়েছে, আপাতত মনে হচ্ছে যে এক আউন্স সোনার দাম ১,৬৭০-১,৬৮০ ডলারের কাছে সর্বনিম্ন স্তর ছুঁয়ে ফেলেছে। আরও বেশি উত্থানের জন্য ১,৭৫০ ডলারের উপরে লাগাতার দাম থাকার প্রবণতা এখনও হয়নি। বিশেষজ্ঞদের মতে, বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ অর্থনীতির মিশ্র তথ্য, নতুন করে করোনাভাইরাস সংক্রমণ এবং মার্কিন-চিনা ও মার্কিন-রুশ সম্পর্কের মধ্যে যে উত্তেজনা বেড়েছে, তার প্রভাব পড়েছে সোনার উপর।

বন্ধ করুন