বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Gulam Nabi Azad: কাশ্মীরে আত্মপ্রকাশ করল গুলাম নবীর নিজের দল ‘ডেমোক্রেটিক আজাদ পার্টি’

Gulam Nabi Azad: কাশ্মীরে আত্মপ্রকাশ করল গুলাম নবীর নিজের দল ‘ডেমোক্রেটিক আজাদ পার্টি’

নতুন দলের পতাকা হাতে গুলাম নবী আজাদ।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, তার নতুন দল কারও সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে না, শান্তি বজায় রাখার এবং জম্মু ও কাশ্মীরে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনার দিকে জোর দেবে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা উন্নয়ন, গণতন্ত্র, শান্তি ও স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি।’

কংগ্রেস ছাড়ার পর জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী গুলাম নবী আজাদ নিজের দল গঠন করার কথা ঘোষণা করেছিলেন। সেই প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে নিজের দলের নাম ঘোষণা করলেন আজাদ। তার নামের সঙ্গে মিল রেখে দলের নাম রাখলেন ‘ডেমোক্রেটিক আজাদ পার্টি।’ গতকাল সোমবার তিনি দলের নীল, সাদা ও হলুদ রঙের পতাকাও উন্মোচন করেন। নতুন গঠিত এই রাজনৈতিক দল মহাত্মা গান্ধীর আদর্শেই তৈরি বলে জানিয়েছেন গুলাম নবী আজাদ।

আরও পড়ুন: ভগবানের দিব্যি,অজিত ডোভালের সঙ্গে দেখা করিনি, খুনের হুমকি গুলাম নবি আজাদকে

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, তার নতুন দল কারও সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে না, শান্তি বজায় রাখার এবং জম্মু ও কাশ্মীরে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনার দিকে জোর দেবে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা উন্নয়ন, গণতন্ত্র, শান্তি ও স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি।’ নতুন দলের নাম ঘোষণা প্রসঙ্গে গুলাম নবী বলেন, ‘আমি সারা দেশে সমর্থক এবং সহকর্মীদের কাছ থেকে প্রায় দেড় হাজার নামের একটি তালিকা পেয়েছিলাম। কিছু ছিল উর্দুতে এবং কিছু সংস্কৃতে। কিন্তু, আমরা হিন্দুস্তানি শব্দ-সহ একটি নাম চেয়েছিলাম যা সবাই বুঝতে পারবে। হাজারেরও বেশি কর্মী সমর্থকের সমর্থনে শেষে এই নামটি বেছে নেওয়া হয়েছে।’

দলের নীতি আদর্শ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাদের দলে কোনও বৈষম্য থাকবে না। ধর্ম-বর্ণের কোনও প্রভাব থাকবে না। বিভিন্ন ধর্মের মানুষ আমাদের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন।’ দলে দুর্নীতির কোনও জায়গা থাকবে না বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন গুলাম নবী। তিনি বলেন, ‘আমরা চাই স্বচ্ছ এবং সৎ লোকজন আমাদের দলে যোগদান করুক। যে কোনও বয়সের মানুষ এই দলে যোগদান করতে পারবে বলে তিনি জানিয়েছেন।’

প্রসঙ্গত কংগ্রেসের সঙ্গে গুলাম নবীর দূরত্ব তৈরি হয় কয়েক মাস আগে থেকেই। কংগ্রেসের অনেকেই অনুমান করেছিলেন, তিনি বিজেপিতে যোগদান করতে পারেন। এরপরই গত অগস্টে কংগ্রেসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে দল থেকে ইস্তফা দেন। এর পরেই তিনি একাধিকবার নিজের নতুন দল গঠন করার কথা ঘোষণা করেছিলেন।

বন্ধ করুন